বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

টিপু হত্যা: ওমানে আটক মুসাকে ফেরত আনা হচ্ছে

আপডেট : ০৩ জুন ২০২২, ২২:০৭

ওমানে গ্রেফতার সুমন সিকদার ওরফে মুসাকে দেশে ফেরত আনা হচ্ছে। তাকে ফেরত আনতে রবিবার (৫ মে) ঢাকা থেকে পুলিশের ৫ সদস্যের একটি টিম ওমান রওনা দেওয়ার কথা। রয়েল ওমান পুলিশের সঙ্গে বৈঠক শেষে আগামী বুধবার অথবা বৃহস্পতিবার মুসাকে সঙ্গে নিয়ে ওই টিম দেশে ফিরবে।

এ ব্যাপারে পুলিশ সদর দফতরে ইন্টারপোলের ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরোর (এনসিবি) সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) মহিদুল ইসলাম বলেন, ওমানে মুসার আটকের বিষয়টি আমরা নিশ্চিত হয়েছি। তাকে ফেরত আনার বিষয়ে পুলিশ সদর দফতর কাজ করছে। ওমানে আমরা যোগাযোগ করেছি। রবিবার পুলিশ সদর দফতর থেকে একটি টিম ওমান যাবে। তবে তারা কবে ফিরবে-এটা নির্ভর করবে ওমান সরকারের ওপর।

গত ২৪ মার্চ রাত সোয়া ১০ টার দিকে মতিঝিল এজিবি কলোনি থেকে বাসায় যাওয়ার পথে খিলগাঁও ফ্লাইওভারের নিচে মাইক্রোবাসে গুলি করলে টিপু (৫৪) ও পাশের রিকশা যাত্রী সামিয়া আফনান প্রীতি (২০) নিহত হন। এ ঘটনায় ডিবির হাতে গ্রেফতার হয় শুটার মাসুম মোহাম্মদ আকাশ। ডিবি তার দেওয়া তথ্য থেকে ডিবি যুবলীগ নেতা এরফান উল্লাহ দামালকে গ্রেফতার করে। খুনের এক সপ্তাহ পর র‌্যাব এ ঘটনায় মতিঝিলের ১০ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক (৫২), সুমন সিকদার মুসার ছোট ভাই আবু সালেহ শিকদার ওরফে শুটার সালেহ (৩৮), নাছির উদ্দিন ওরফে কিলার নাছির (৩৮) এবং মোরশেদুল আলম ওরফে কাইল্লা পলাশকে (৫১) গ্রেফতার করে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, টিপুকে হত্যার পরিকল্পনার সব ছক কষে মুসা ১২ মার্চ দুবাই পালিয়ে যায়। সেখানে শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের ডেরায় অবস্থান করে টিপু কিলিং মিশন মনিটরিং করে। পরে মুসা দুবাই থেকে পালিয়ে ওমানে যায়। সেখানে গত ২৪ মে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে মুসা রয়েল ওমান পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। 

ইত্তেফাক/ইউবি