বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

কুমিল্লায় কাউন্সিলর পদে বিজয়ী কিবরিয়াসহ ৮ জামায়াতকর্মী কারাগারে

আপডেট : ২১ জুন ২০২২, ১৯:৪৪

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী কাজী গোলাম কিবরিয়া, একরাম হোসেন বাবু ও সাবেক কাউন্সিলর মোশাররফ হোসেনসহ জামায়াতের ৮ কর্মীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। তারা সহিংসতার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় অভিযুক্ত।

উচ্চ আদালতের আদেশমূলে তারা মঙ্গলবার (২১ জুন) দুপুরে কুমিল্লার সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আতাব উল্লার আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট মো. জহিরুল ইসলাম সেলিম। 

মামলা সূত্রে জানা গেছে, কুমিল্লা নগরীর নানুয়াদীঘির পাড়ে গত বছরের ১৩ অক্টোবর দুর্গাপূজা চলাকালে একটি অস্থায়ী মণ্ডপে পবিত্র কোরআন রেখে অবমাননার ঘটনায় নগরীর কয়েকটি স্থানে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগসহ সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় দুটি মামলা করে।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট মো. জহিরুল ইসলাম সেলিম সাংবাদিকদের জানান, পৃথক দুটি মামলায় কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ১ নম্বর ওয়ার্ডের তৎকালীন কাউন্সিলর গোলাম কিবরিয়া, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. মোশাররফ হোসেন ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর একরাম হোসেন বাবুকে আসামি করা হয়। পরে ওই ৩ কাউন্সিলরসহ অন্যরা উচ্চ আদালত থেকে ৮ সপ্তাহের জামিন লাভ করেন। মঙ্গলবার ওই ৩ কাউন্সিলর ছাড়া মামলায় অভিযুক্ত নগরীর দক্ষিণ চর্থা এলাকার বাসিন্দা আমির হোসেন ফরায়েজী, শুভপুর এলাকার মো. রাসেল হোসেন, মফিজুল ইসলাম, মান্নান মিয়া ও নজির আহমেদ জামিনের আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

আসামিপক্ষের আইনজীবী বদিউল আলম সুজন জানান, গত বছর এ মামলাটি যখন দায়ের করা হয়, তখন ওই ৩ জনই ছিলেন কুমিল্লা সিটির সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ছিলেন।  গত ১৫ জুন অনুষ্ঠিত কুমিল্লা সিটির নির্বাচনে ওই ৩ কাউন্সিলরের মধ্যে কাজী গোলাম কিবরিয়া ও অ্যাডভোকেট একরাম হোসেন বাবু বিপুল জয়ী হয়েছেন। আদালতে এখনো মামলার চার্জশিট দেওয়া হয়নি। তাই তাদের জামিন পাওয়ার অধিকার ছিল। 

ইত্তেফাক/ইউবি