শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

‘পাক সামরিক বাহিনীকে পুনর্গঠন করছেন জেনারেল বাজওয়া’

আপডেট : ২৭ জুন ২০২২, ১৭:১০

গত কয়েক মাস ধরে, এমনকি সম্ভবত গত কয়েক বছরে, পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে অলক্ষিত পরিবর্তন ঘটছে। একটা সময় ছিল যখন পাকিস্তান সেনাবাহিনী দেশের রাজনীতিতে নির্দ্বিধায় হস্তক্ষেপ করত। অনেক সময় তাদের ইচ্ছে অনুযায়ী জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হতো। 

তবে এই অনবস্থান থেকে অনেকটাই সরে এসেছে পাক সেনা বাহিনী। বর্তমানে তারা হ্যান্ডস-অফ পন্থা গ্রহণ করেছে। পাক রাজনীতি এখন নিজে নিজের মতো করে চলছে বল জানিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী। পাক সেনাদের দৃষ্টিভঙ্গির এই পরিবর্তন আশ্চর্যজনকভাবে গণতন্ত্র এবং রাজনীতির প্রতি আরও সহনশীল অবস্থানকে নির্দেশ করে।

সাম্প্রতিক বছরগুলিতে, বেসামরিক সরকারগুলিকে অস্থিতিশীল করার পরিবর্তে তাদের স্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী। সামরিক বাহিনী তার বর্তমান "নিরপেক্ষ" অবস্থানকে সবার সামনে তুলে ধরছে। 

বর্তমানে বেসামরিক রাজনীতিবিদদের দেশ চালাতে দিচ্ছে পাকিস্তানের বর্তমান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান সেনাবাহিনী।

ইমরান খানকে অনাস্থা ভোটে হারিয়ে ক্ষমতায় আসে জোট সরকারের নতুন প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরীফ। এই সরকার সামরিক বাহিনীর সামান্য হস্তক্ষেপে দেশ পরিচালনা করছে, যা মূলত পরিস্থিতি স্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে।


এদিকে পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল জাভেদ কমর বাজওয়াকে ‘অর্ডার অব কিং আবদুল আজিজ’ সম্মাননা জানিয়েছে সউদী আরব। সউদী আরবের প্রতিষ্ঠাতা বাদশা আবদুল আজিজের নাম অনুসারে এই পুরস্কার প্রবর্তন কর হয়েছে। রাষ্ট্রীয় মিডিয়ার উদ্ধৃতি দিয়ে রোববার এ খবর দিয়েছে অনলাইন আরব নিউজ। 

সউদী আরব ও পাকিস্তানের মধ্যে শক্তিশালী ও উন্নত সম্পর্ক গড়ে তোলার জন্য জেনারেল বাজওয়ার প্রশংসা করে এই পুরস্কার দেয়া হয়েছে। পুরস্কারটি ‘কিং আবদুল আজিজ মেডেল অব এক্সিলেন্ট ক্লাস’ হিসেবে পরিচিত। পাকিস্তানি সেনাপ্রধানকে তা উপহার হিসেবে তুলে দেন সউদী আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান। 

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে পাকিস্তান তার আর্থিক সমস্যা সমাধানের জন্য তেলসমৃদ্ধ আরব দেশ বিশেষ করে সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছ থেকে ৫০০ কোটি ডলারের বেশি ঋণ নিয়েছে। পাকিস্তানের সেনাপ্রধান এমন সময় রিয়াদ সফরে গেলেন যখন দেশটি চরম অর্থনৈতিক সংকটে ভুগছে এবং এ মুহূর্তে ইসলামাবাদের জন্য ব্যাপকমাত্রায় সৌদি সাহায্যের প্রয়োজন। 

গত এপ্রিলে যখন শাহবাজ শরীফ পাকিস্তানের পার্লামেন্টে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রতি অনাস্থা ভোট নিয়ে ক্ষমতায় আসেন তখন থেকে তার সরকার বেশ কয়েকটি চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়েছে যা ক্ষমতাসীন মুসলিম লীগ- অন্তর্ভুক্ত শাসক দলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের জন্ম দিয়েছে।

অন্যদিকে রাজস্ব আয় ক্রমাগতভাবে হ্রাস এবং ব্যয়ের পরিধি বহুগুণে বেড়ে যাওয়াার কারণে পাকিস্তান বর্তমানে চরম বাজেট ঘাটতির মুখে পড়েছে। ফলে দেশটির সরকার খাদ্যসহ মৌলিক পণ্য আমদানির ক্ষেত্রে হিমশিম খাচ্ছে। মূলত বর্তমান পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণ পেতে পাকিস্তানের জন্য এই মুহূর্তে ব্যাপক আর্থিক সহায়তার প্রয়োজন এবং সেই লক্ষ্য পূরণের জন্যই পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল বাজওয়া সৌদি আরব সফর করেন বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন।

ইত্তেফাক/এএইচপি