রোববার, ০৭ আগস্ট ২০২২, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ফিনল্যান্ড-সুইডেনে ন্যাটো সেনা পাঠালে কঠোর জবাব: পুতিন

ইউক্রেনের বেশির ভাগ দখল করতে চায় রাশিয়া: যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট : ০১ জুলাই ২০২২, ০২:০২

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো যদি ফিনল্যান্ড ও সুইডেনে কোনো সেনা মোতায়েন করে তাহলে তার জবাব দেবে রাশিয়া। দেশ দুইটি যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন জোটটিতে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার আমন্ত্রণ পাওয়ার পর এই হুঁশিয়ারি জানালেন পুতিন।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেওয়া বক্তব্যে পুতিন বলেন, ‘ইউক্রেনের সঙ্গে আমাদের যে সমস্যা তা ফিনল্যান্ড ও সুইডেনের সঙ্গে নেই। তারা ন্যাটোতে যোগ দিতে চায়, দিতে থাকুক’। মধ্য এশিয়ার সাবেক সোভিয়েতভুক্ত দেশ তুর্কমেনিস্তানে আঞ্চলিক নেতাদের সঙ্গে আলাপের পর পুতিন বলেন, ‘তবে তাদের অবশ্যই বুঝতে হবে যে আগে কোনো হুমকি ছিল না, এখন যদি সেখানে সামরিক দল এবং অবকাঠামো মোতায়েন করা হয়, তবে আমাদের সদয়ভাবে প্রতিক্রিয়া জানাতে হবে এবং যে অঞ্চলগুলো থেকে আমাদের প্রতি হুমকি তৈরি করা হয়েছে তাদের জন্য একই হুমকি তৈরি করতে হবে’। পুতিন বলেন ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার পর হেলসিঙ্কি এবং স্টকহোমের সঙ্গে মস্কোর সম্পর্ক খারাপ হওয়া এড়ানো যাবে না। 

তিনি বলেন, ‘আমাদের মধ্যে সবকিছু ঠিকঠাক ছিল, কিন্তু এখন কিছু উত্তেজনা থাকতে পারে, অবশ্যই থাকবে। আমাদের জন্য হুমকি থাকলে তা অনিবার্য’। তিন দেশ একে অপরের নিরাপত্তা রক্ষায় সম্মত হওয়ার পর ফিনল্যান্ড এবং সুইডেনের জোটে যোগদানের ওপর থেকে আপত্তি প্রত্যাহার করে নেয় ন্যাটো সদস্য দেশ তুরস্ক। এর এক দিন পর পুতিন তার মন্তব্য করেছেন। এদিকে, তুরস্ক তার আপত্তি প্রত্যাহার করায় দেশটিকেও হুমকি দিয়েছে রাশিয়া।

অন্যদিকে, ইউক্রেনে আরো ১০০ কোটি পাউন্ড সামরিক সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যুক্তরাজ্য। স্হানীয় সময় গতকাল বুধবার দেশটি এ প্রতিশ্রুতি দেয়। সামরিক সহায়তার মধ্যে বিমান ও ড্রোন প্রতিরক্ষাব্যবস্হা রয়েছে। ডাউনিং স্ট্রিট এক বিবৃতিতে বলেছে, কিয়েভে যুক্তরাজ্যের নতুন সহায়তার ফলে এ পর্যন্ত ইউক্রেনে সামরিক সহায়তার পরিমাণ পৌঁছেছে ২৩০ কোটি পাউন্ডে। রুশ পার্লামেন্টের আন্তর্জাতিক বিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান লিওনিদ এক টেলিগ্রাম পোস্টে লিখেছেন, তিনি যদি তুরস্কের জায়গায় থাকতেন তাহলে, ‘ফিনিশ এবং সুইডিশদের ন্যাটোতে যোগদানে ভেটো না দেওয়ার বিনিময়ে আমি যে আশ্বাস পেয়েছি তা নিয়ে আমি খুব বেশি খুশি হতাম না’।

আক্রমণের তীব্রতা বেড়েছে

যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট নেটো কিয়েভের সেনাবাহিনীকে আধুনিকায়নের পরিকল্পনায় সম্মত হওয়ার পর ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে আক্রমণের তীব্রতা বাড়িয়েছে রাশিয়া। স্পেনের মাদ্রিদে অনুষ্ঠিত ন্যাটোর সম্মেলনে মস্কোকে পশ্চিমাদের নিরাপত্তায় সবচেয়ে বড় ‘হুমকি’ হিসেবে অভিহিত করেছে জোটটি। স্হান নেই। লুহানস্কের গভর্নর শেহিই হাইদাই বলেছেন, পূর্বাঞ্চলীয় এই শহরে বেপরোয়াভাবে গোলা নিক্ষেপ করে যাচ্ছে রাশিয়া। বিশেষ করে লিসিচানস্কে তেলের প্রধান শোধনাগারকে লক্ষ্য করে হামলা জোরালো করা হয়েছে। এই শহরটি লুহানস্ক থেকে ১০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্হিত।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

রুশ হামলায় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের কর্মী আহত 

ইউক্রেনে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে রুশ হামলা, জেলেনস্কির নিন্দা 

বাখমুটে রাশিয়ার মুহুর্মুহু হামলা 

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ নতুন পর্বে প্রবেশ করতে চলেছে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ইউক্রেনে রূশ বাহিনীর বিপক্ষে মুসলিমদের লড়াই 

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে রুশ গোলাবর্ষণ, নিহত ৮

দোনেতস্কে ইউক্রেনের গোলাবর্ষণ, নিহত ৫ 

'যুদ্ধে রাশিয়ার ২০ হাজার সেনা নিহত'