শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পাকিস্তানে ৩ মাসে ৪ বার জ্বালানি তেলের বৃদ্ধি

আপডেট : ০২ জুলাই ২০২২, ০৭:৫১

পাকিস্তানে আবারও বাড়ানো হলো পেট্রোল, ডিজেল ও কেরোসিনের দাম। নতুন মূল্য অনুযায়ী লিটারপ্রতি ১৪ থেকে ১৮ রুপি বেশি গুনতে হবে জনসাধারণকে। গত এপ্রিলে শাহবাজ শরিফ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে এ নিয়ে চার বার বাড়ানো হলো জ্বালানি তেলের দাম। খবর জিও টিভির।

দেশটির অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ১ জুলাই থেকে পেট্রোলের দাম লিটারপ্রতি ১৪ রুপি ৮৫ পয়সা বেড়ে ২৪৮ রুপি ৭৪ পয়সা হয়েছে। হাই স্পিড ডিজেলের দাম লিটারপ্রতি ২৭৬ রুপি ৫৪ পয়সা, বাড়ানো হয়েছে ১৩ রুপি ২৩ পয়সা। কেরোসিনের দাম সর্বোচ্চ ১৮ রুপি ৮৩ পয়সা বেড়ে প্রতি লিটার বিক্রি হচ্ছে ২৩০ রুপি ২৬ পয়সায়। এ নিয়ে গত এপ্রিলের পর থেকে চার বার দাম বাড়ানো হলো। প্রথম বার গত ২৬ মে পেট্রোলের দাম এক লাফে ৩০ রুপি বাড়ানো হয়। এর এক সপ্তাহ যেতে না যেতেই গত ২ জুন বাড়ানো হয় আরো ৩০ রুপি। এরপর গত ১৫ জুন লিটারপ্রতি ২৪ রুপি বাড়ে পেট্রোলের দাম। আর এবার বাড়ল আরো প্রায় ১৫ রুপি।

অর্থ মন্ত্রণালয় আরো জানিয়েছে, বিগত সরকারের নেওয়া বেশ কিছু কর্মসূচি তারা আবার শুরু করেছে। আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম বাড়ছে। তাই তাদেরও বাধ্য হয়ে দাম বাড়াতে হচ্ছে।

অর্থমন্ত্রী মিফতাহ ইসমাইল এক সাংবাদিক সম্মেলনে দাবি করেছেন, ইমরান খানের সরকার প্রতি মাসে পেট্রো পণ্যের দাম লিটারপ্রতি চার রুপি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। কিন্তু তারা আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলকে (আইএমএফ) দেওয়া প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে এ খাতে ভর্তুকি দেয়। এতে দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ আরো চাপের মুখে পড়ে।

তিনি জানিয়েছেন, অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে আইএমএফের সঙ্গে কথাবার্তা অনেক দূর এগিয়েছে। সংস্থাটির কাছ থেকে আর্থিক সাহায্য পাওয়ার ব্যাপারে তারা আশাবাদী।

ইত্তেফাক/এএইচপি