শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পাগলা মসজিদের দানবাক্সে এবার মিললো ১৭ বস্তা টাকা

আপডেট : ০২ জুলাই ২০২২, ১৪:২০

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দানসিন্দুক আজ শনিবার (২ জুলাই) সকালে খোলা হয়েছে। দানবাক্স হিসেবে ব্যবহৃত ৮টি লোহার সিন্দুক খোলার পর প্রথমে মোট ১৬টি বড় বস্তা এবং ১টি ছোট বস্তায় টাকাগুলো ভর্তি করা হয়। চলছে টাকা বাছাই ও গণনার কাজ। 

মসজিদ সূত্র জানায়, এই কাজে অংশগ্রহণ করছেন মসজিদ সংলগ্ন মাদরাসার ১৩২ জন ছাত্র এবং রূপালী ব্যাংকের বিভিন্ন পর্যায়ের ৭০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী। দিনব্যাপী টাকা গণনা চলবে। 

পাগলা মসজিদের প্রশাসনকি কর্মকর্তা বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. শওকতউদ্দীন ভুঁইয়া বলেন, কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) গোলাম মোস্তফা ও পাঁচজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এই কার্যক্রম চলছে।

এর আগে গত ১২ মার্চ দানসিন্দুক খোলার পর এযাবতকালের সর্বোচ্চ তিন কোটি ৭৮ লাখ ৫৩ হাজার ২৯৫ টাকা পাওয়া গিয়েছিল। তা-ছাড়াও পাওয়া গিয়েছিল প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা ও স্বর্ণালঙ্কার।

প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ধর্মপ্রাণ লোকজন এসে মসজিদের দানসিন্দকুগুলোতে টাকাপয়সা ছাড়াও স্বর্ণালঙ্কার দান করে থাকেন। এ ছাড়াও, গবাদিপশু, হাঁস-মুরগিসহ বিভিন্ন ধরনের জিনিসপত্র মসজিদটিতে দান করা হয়।

কিশোরগঞ্জ জেলার ঐতিহাসিক স্থাপনার মধ্যে পাগলা মসজিদ অন্যতম। জেলা শহরের পশ্চিম পাশের হারুয়া এলাকায় নরসুন্দা নদীর তীরে মসজিদটি গড়ে ওঠে।

ইত্তেফাক/মাহি