শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পুরো লিসিচানস্ক দখলের ঘোষণা রাশিয়ার

আপডেট : ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯:১৩

ইউক্রেনের পূর্ব দিকের কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ শহর লিসিচানস্কের ওপর গত কয়েকদিন ধরে তুমুল হামলা চালিয়েছে রুশ বাহিনী । এরপর আজ (৩ জুলাই) রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, শহরটি এখন পুরোপুরি তাদের সৈন্যদের দখলে। 

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী এক বিবৃতিতে বলেন, তিনি প্রেসিডেন্ট পুতিনকে জানিয়েছেন পুরো লুহানস্ক অঞ্চল এখন "মুক্ত।" এর আগে রাশিয়া জানায়, পুরো শহরটি চারদিক থেকে রুশ সৈন্যরা ঘিরে ফেলেছে এবং শহরের কেন্দ্রে এখন ইউক্রেনীয় সৈন্যদের সাথে লড়াই চলছে।

লিসিচিানস্ক শহরের পতনের এই দাবি সম্পর্কে ইউক্রেনের সেনা বাহিনীর পক্ষ থেকে এখনো কিছু শোনা যায়নি। ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ের মুখপাত্র ইউরিভ সাক বিবিসিকে বলেন, লিসিচিানস্ক এখনও তাদের হাতছাড়া হয়নি। তবে তিনি স্বীকার করেন, ইউক্রেনীয় সৈন্যরা সেখানে প্রচণ্ড হামলার মুখে পড়েছে।

বিবিসির পক্ষেও এখনো নিরপক্ষে সূত্রে লিসিচিানস্ক পতনের রাশিয়ার দাবি যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় ডনবাসের লুহানস্ক এবং দোনেৎস্ক থেকে ইউক্রেনীয় সৈন্যদের হঠানোই এখন এই যুদ্ধে রাশিয়ার প্রধান লক্ষ্য। পুরো লুহানস্ক নিয়ন্ত্রণের পর এখন রুশ সৈন্যদের দোনেৎস্কের দিকে নজর দেবে বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ের মুখপাত্র ইউরিভ সাক বলেছেন রাশিয়া লুহানস্ক নিতে পারলেও ডনবাসের "যুদ্ধ এখনও শেষ হয়নি।"

তিনি বলেন, দনেৎস্ক অঞ্চলের "অনেক বড় শহর" এখনও ইউক্রেনীয় সৈন্যদের নিয়ন্ত্রণে।

তিনি আরও বলেন, "এই সব শহরে গত দু-তিনদিন ধরে প্রচণ্ড রকম ক্ষেপনাস্ত্র এবং রকেট হামলা হচ্ছে, কিন্তু "ডনবাসের যুদ্ধ এখনও বাকি।" ঐ কর্মকর্তা বলেন, ইউক্রেন "যথেষ্ট পরিমাণে" ভারী কামান এবং অন্যান্য অস্ত্র পেতে চলেছে এবং তখন হারানো এসব অঞ্চল তারা মুক্ত করতে সমর্থ হবেন। 

ইত্তেফাক/এসআর