শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পোল্যান্ডের গণকবরে মিললো ৮ হাজার মানুষের দেহভস্ম

আপডেট : ১৪ জুলাই ২০২২, ২০:৪২

পোল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলীয় শহর দিজিয়ালদোতে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার একটি গণকবরে ১৭ দশমিক ৫ টন মানব দেহভস্ম পাওয়া গেছে। অন্তত ৮ হাজার মানুষকে হত্যার পর তাদের পুড়িয়ে দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন পোল্যান্ডস ন্যাশনাল রিমেমব্রান্স ইনস্টিটিউটের কর্মকর্তা টমাজ জ্যাংকোস্কি।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়- দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় দিজিয়ালদোর নাম ছিল সোলদাউ। যুদ্ধের শুরুর বছর, ১৯৩৯ সালেই এ শহরে রাজনৈতিক বন্দিশিবির (কনসেনট্রেশন ক্যাম্প) খুলেছিল নাৎসি বাহিনী। গণকবরটি সেই বন্দিশিবিরের সংলগ্ন। ধারণা করা হচ্ছে, লোকজনকে ক্যাম্পে ধরে এনে নির্যাতন ও হত্যার পর তাদের মৃতদেহ পুড়িয়ে তার ছাই এই গণকবরে ফেলে দেওয়া হতো। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় পোল্যান্ডে নিহতদের স্মরণে দেশটির সরকার পোল্যান্ডস ন্যাশনাল রিমেমব্রান্স ইনস্টিটিউট নামে একটি প্রতিষ্ঠান গঠন করে।

গণকবরটিতে মানব দেহভস্মের পাশাপাশি আধপোড়া কাপড়, বোতাম ও অন্যান্য জিনিসও পাওয়া গেছে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, হত্যার পর মৃতদেহ জ্বালিয়ে দেওয়ার আগে নিহতদের দেহ তল্লাশি করে মূল্যবান জিনিসপত্র লুট করত নাৎসী সেনারা। নিহতদের বিষয়ে বিস্তারিত জানতে ডিএনএ টেস্টের জন্য এসব দেহভস্মের নমুনা বিজ্ঞানাগারে পাঠানো হবে বলে আশা করছেন বিজ্ঞানীরা।

পোল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মাতেউজ মোরাউইকি বুধবার এক বিবৃতিতে জানান, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জার্মানির নাৎসী বাহিনী পোল্যান্ডে যে গণহত্যা ও আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি করেছে, সে বিষয়ক একটি প্রতিবেদন প্রস্তুত করছে দেশটির সরকার।

ইত্তেফাক/ইউবি