শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বর্ষায় কেন চুল পড়ার সমস্যা বাড়ে 

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২২, ১৩:০২

সব ঋতুতেই চুল পড়ে। তার কারণও অনেক থাকে কিন্তু বর্ষাকালে অন্য সময়ের তুলনায় দ্বিগুণ চুল পড়ে। অনেকে হয়তো ভাবেন বৃষ্টির জন্য ধুলাবালি কম, চুলও কম পড়বে। তবে জেনে রাখা ভালো, বৃষ্টির পানি চুলে পড়লে হতে হবে সতর্ক।

বৃষ্টির পানি খালি চোখে পরিষ্কার মনে হলেও তাতে কিন্তু একধরনের অ্যাসিড থাকে। তা ছাড়া স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়া, ভ্যাপসা গরম, মাথায় ঘাম, চুল ঠিকমতো না শুকানো— এ সবের কারণেও ছত্রাকের বাসা বাঁধে। মাথার ত্বকে চুলের গোড়ায় ইনফেকশন, খুশকি, চুল পড়া, চুলের আগা ফেটে যাওয়া, রুক্ষ হয়ে পড়াসহ নানা ধরনের ছত্রাকের আক্রমণে চুলে ক্ষতি হয় বর্ষায়।  

অন্যান্য ঋতুতে প্রতিদিন যদি গড়ে ৫০ থেকে ৬০টি চুল পড়ে, বর্ষাকালে সেটা দ্বিগুণ হয়ে যায়

অন্যান্য ঋতুতে প্রতিদিন যদি গড়ে ৫০ থেকে ৬০টি চুল পড়ে, বর্ষাকালে সেটা দ্বিগুণ হয়ে যায়। অ্যালার্জির সমস্যায় খুশকি, চুলের উজ্জ্বলতা কমে যাওয়া ও উকুনের উপদ্রব হতে পারে। যাদের মাথার ত্বক তৈলাক্ত তাদের চুল শুকাতে দেরি হয়। এর ফলে চুলের গোড়া থাকে নরম, চুলও পড়েও বেশি। এসব ক্ষেত্রে ঘরোয়া যত্নের মাধ্যমেই চুলের সমস্যার সমাধান করতে পারলে ভালো। যেমন, গোসলের পর পরই চুলটাকে ফ্যানের বাতাসে শুকানো সবচেয়ে ভালো। বর্ষার মৌসুমে অ্যান্টিফাঙ্গাল শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন। কারণ তৈলাক্ত ত্বকের অধিকারীরা এ ধরনের সমস্যায় বেশি ভোগেন। তবে ব্যাকটেরিয়া-সংক্রান্ত সমস্যা বেড়ে গেলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। 

বর্ষায় বৃষ্টির পানি চুলে পড়লে হতে হবে সতর্ক

বর্ষায় চেষ্টা করতে হবে সপ্তাহে অন্তত তিন দিন সঠিক নিয়মে চুল শ্যাম্পু করার। শ্যাম্পু করার আগে চুলে অবশ্যই তেল লাগিয়ে একটা রাত রেখে পরদিন ধুয়ে নিতে হবে। যদি সেটা সম্ভব না হয়, তাহলে এক ঘণ্টা বা আধা ঘণ্টা মাথার তালুতে ভালোভাবে তেল ম্যাসাজ করে তার পর শ্যাম্পু করুন। মাথার চুলে খুশকি থাকলে তেলে লেবুর রস মিশিয়ে নিয়ে মাথার ত্বকে ভালো করে ম্যাসাজ করতে হবে। এতে যাদের খুশকির সমস্যা আছে তারা উপকার পাবেন। কারণ তখন খুশকি নরম হয়ে যাবে এবং মোটা দাঁতের চিরুনি দিয়ে আঁচড়ে নিলে খুশকি উঠে আসবে। 

বর্ষায় চুল পড়া কমাতে হলে নিয়মিত চুল পরিষ্কার রাখতে হবে

ঘরোয়া অসংখ্য প্যাক আছে চুলের যত্নে ভালো উপকার দেয় বৃষ্টির দিনগুলোতে। তবে চুল পড়া কমাতে হলে নিয়মিত চুল পরিষ্কার রাখতে হবে। প্রতিদিনের ডায়েটে পুষ্টিকর খাবার রাখবেন, জীবন থেকে দুশ্চিন্তাকে বাদ দিতে হবে এবং যেকোনো ওষুধ গ্রহণের আগে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন। 

 

 

 

ইত্তেফাক/আরএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন