বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ২ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পুলিশের গুলিতে শিশু নিহত: অজ্ঞাত ৩ শতাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ 

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২২, ২১:৩৫

গত ২৭ জুলাই ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার বাচোর ইউনিয়নের ভিএফ নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনের দিন পুলিশের গুলিতে শিশু নিহতের ঘটনায় অজ্ঞাত ৩ শতাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এতে চরম আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে আশেপাশের এলাকাজুড়ে। অনেকেই বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছেন।

জানা যায়, ওইদিন নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি চালায় পুলিশ। এ ঘটনায় সুরাইয়া আক্তার (১ বছর) নামে এক শিশুর  মৃত্যু হয়। পরদিন ২৮ জুলাই রাতে ঐ কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার অধ্যাপক খবিবর রহমানকে থানায় ডেকে নেওয়া হয়। এ সময় তিনি বাদী হয়ে অজ্ঞাত নামা ৩ শতাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

ঘটনার দিন ভোট গ্রহণ শেষে ফলাফল ঘোষণাকে কেন্দ্র করে প্রতিদ্বন্দ্বী মেম্বার প্রার্থীদের বিক্ষোভে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠে। এ সময় উত্তেজিত লোকজন পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে এবং পুলিশের গাড়ি ভাংচুর করে। এসময় একজন পুলিশ আহত হয়। তারা পুলিশসহ নির্বাচন কর্মকর্তাদের ঘেরাও করে রাখে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনতে পুলিশ চার রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। এতে ভোট কেন্দ্রের বাইরে মায়ের কোলে থাকা শিশুটির মাথায় গুলি লাগলে ঘটনাস্থলে সে মারা যায়। 

এনিয়ে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী মিছিল নিয়ে এসে থানা ঘেরাও করে ও টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে। পুলিশ ফাঁকা গুলি ও টিয়ার গ্যাস ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অপরদিকে কিছু লোকজন রাস্তায় ওসিসহ পুলিশকে আটক করে রাখে। পরে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও বিজিবির সদস্যরা পুলিশকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

থানায় অভিযোগের বিষয়ে ওসি এসএম জাহিদ ইকবাল বলেন, ওই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা প্রায় সাড়ে তিন শত ব্যক্তির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন। তবে অভিযোগ এখনো মামলা হিসেবে রেকর্ডভুক্ত হয়নি। 

জেলা পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ হয়েছে কিন্তু মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়নি। এ নিয়ে এলাকায় আতংকের বিষয়ে এস পি বলেন, কোনো নিরপরাধ ব্যক্তি যেন হয়রানির শিকার না হন, সেদিকে আমরা লক্ষ্য রাখবো।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি