শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বিদেশি পৃষ্ঠপোষকতায় ভরসা পাকিস্তানের

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২২, ১৭:৪৫

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন বা উপসাগরীয় যেকোনো দেশ হোক না কেন পাকিস্তান সর্বদা বিদেশী পৃষ্ঠপোষকতার উপর নির্ভরশীল। এমনকি স্বাধীনতার ৭৫ বছর পরেও স্বনির্ভর হতে পারেনি দেশটি। এক প্রতিবেদনে এমন অত্থ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এএনআই।

কয়েক দশক ধরে, ভূ-রাজনৈতিক "ভাড়া" এবং অনুদান থেকে লাভবান হওয়ার চিন্তায় আছে পাকিস্তান।  কীভাবে য়ের নিচে ভূ-রাজনৈতিক বালি সরে গেছে সে সম্পর্কে খোঁজ নাই পাকিস্তানের বর্তমান প্রজন্মের অভিজাতদের। ২১ শতক থেকে পাকিস্তানের স্থিতিশীলতা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন এবং সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের উপসাগরীয় রাজতন্ত্র দ্বারা প্রভাবিত হয়েছে।

পাকিস্তানের ওপর এই সহায়তার প্রভাব ব্যাপক ও সরকার গঠনের সঙ্গেও এ প্রভাব জড়িয়ে আছে। এর মধ্য দিয়ে পাকিস্তানে পরাধীন শাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে মার্কিন বৈশ্বিক স্বার্থ রক্ষাকারী নীতির সঙ্গে সমঝোতা নিশ্চিত করা হয়েছে। এই ধরনের শাসকদের মাধ্যমে সাহায্যদাতা পশ্চিমারা এমন বিজ্ঞাপন তৈরি করেছে, যাতে তাদের ওপর আমাদের নির্ভরতা চিরস্থায়ী হয়। সেভাবেই আমাদের অর্থনীতিকে সাজানো হয়েছে। আমাদের সমান সুযোগ তৈরির ক্ষেত্রও কেড়ে নেওয়া হয়েছে।

আশ্চর্যজনকভাবে, পাকিস্তানের পররাষ্ট্রনীতিও একই ধারা অনুসরণ করেছে। পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ইমরান খান নিজেকে ষড়যন্ত্রের বলি হিসেবে তুলে ধরার চেষ্টা করছেন।

ইত্তেফাক/এএইচপি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন