বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ২ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

চাপের মুখে কানাডা

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২২, ১৩:৫১

রাশিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও সে দেশের গাজপ্রম কোম্পানির গ্যাস পাইপলাইনের টার্বাইন মেরামতি করে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েছে কানাডার সরকার৷ জার্মানির সরকার প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোর পাশে দাঁড়িয়েছে৷রাশিয়া থেকে গ্যাস সরবরাহ যতটা সম্ভব চালু রাখতে জার্মানি কতটা মরিয়া, রাজনৈতিক আঙিনায় জোরালো তৎপরতা তা স্পষ্ট করে দিচ্ছে৷ রাশিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞার আওতায় গ্যাস না থাকলেও খোদ মস্কোই নানা অজুহাত দেখিয়ে জুন মাস থেকে সরবরাহ কমিয়ে চলেছে বলে জার্মানি অভিযোগ করছে৷ 

রাশিয়ার গাজপ্রম কোম্পানি জার্মানির সিমেন্স এনার্জি কোম্পানির বিরুদ্ধে বার বার টার্বাইনের মেরামতি সংক্রান্ত সব নথিপত্র হস্তান্তর না করার অভিযোগ করলেও জার্মান কোম্পানি তা অস্বীকার করেছে৷ সেই বাধা দ্রুত দূর করতে জার্মানির সরকার ব্যাপক উদ্যোগ নিয়েছে৷ নিষেধাজ্ঞার কারণে কানাডায় নর্ড স্ট্রিম ১পাইপলাইনের টার্বাইন মেরামতির কাজে সমস্যা দেখা দেওয়ায় চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎসের সরকার অবিলম্বে হস্তক্ষেপ করেছে৷ কানাডাও ব্যতিক্রম হিসেবে সেই টার্বাইন মেরামতি করেছে৷ 

তবে রাশিয়ার গাজপ্রম কোম্পানিকে পাইপলাইনের টার্বাইন সরবরাহ করতে রাজি হয়ে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েছেন ক্যানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো৷ সে দেশের সংসদের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটি বিষয়টির তদন্ত করছে৷ কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেলানি জোলির পাশাপাশি ক্যানাডায় নিযুক্ত জার্মান রাষ্ট্রদূত সাবিনে স্বারভাসারও কমিটির সামনে বক্তব্য রাখবেন৷ ইউক্রেনীয়দের এক আন্তর্জাতিক সংগঠন রাশিয়াকে টার্বাইন সরবরাহের অভিযোগে ক্যানাডার বিরুদ্ধে মামলার ঘোষণা করেছে৷ 

জার্মান চ্যান্সেলর শলৎস ক্যানাডার প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোর প্রতি সমর্থন জানিয়ে বলেন, এমন অভিযোগ তার কাছে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন৷ তার মতে, টার্বাইন সরবরাহে সম্মতির মাধ্যমে ক্যানাডার সরকার মোটেই গাজপ্রম কোম্পানির কোনো উপকার করে নি, বরং জার্মানি তথা ইউরোপের প্রতি জোরালো সমর্থনজানিয়েছে৷ ক্যানাডার দ্য গ্লোব অ্যান্ড মেল সংবাদপত্রের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে শলৎস আরও বলেন, এই টার্বাইন সরবরাহের মাধ্যমে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ভাঁওতা ফাঁস হয়ে যাবে৷ প্রযুক্তিগত সমস্যার অজুহাত দেখিয়ে রাশিয়া আর গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করতে পারবে না বলে তিনি মনে করেন৷ 

শলৎস বুধবার নিজে জার্মানির ম্যুলহাইম আন ডেয়ার রুয়র শহরে ক্যানাডা থেকে আনা টার্বাইনটি পরিদর্শন করছেন৷ নর্ড স্ট্রিম পাইপলাইনে বসানোর আগে টার্বাইনটি সেখানে এনে রাশিয়ায় পাঠানোর জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে৷ জার্মানির সিমেন্স এনার্জি কোম্পানি মঙ্গলবার এই খবর দিয়েছে৷ 

শলৎসের এই পদক্ষেপের পরেই জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনালেনা বেয়ারবক তার প্রথম ক্যানাডা সফরে যাচ্ছেন৷ তবে রাজধানী ওটাওয়ার বদলে তিনি ক্যানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জোলির শহর মনট্রিয়ালে পা রাখছেন৷ সেখানেই নর্ড স্ট্রিম ১ পাইপলাইনের টার্বাইন রক্ষণাবেক্ষণের কাজ করা হয়েছে৷ তবে বেয়ারবক সেখানে সিমেন্স এনার্জি কারখানা পরিদর্শনের কোনো পরিকল্পনা করছেন না৷

ইত্তেফাক/এএইচপি