শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ইভিএম নিয়ে বিভ্রান্তিকর বক্তব্য

ক্ষমা চাইলেন সেই আওয়ামী লীগ নেতা

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২২, ১৯:৪৭

ইলেক্ট্রিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) নিয়ে বিভ্রান্তিকর বক্তব্য দিয়ে সরকারের ভাবমূর্তি প্রশ্নবিদ্ধ করায়  ক্ষমা চাইলেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতা জোবায়দুল হক রাসেল। বুধবার (৩ আগস্ট) বরিশাল অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দিন এ ঘটনায় তদন্তে আসলে ওই আওয়ামী লীগ নেতা ক্ষমা চান। 

এসময় জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা খান আবি শাহনুর খান, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা তারিকুল ইসলাসহ নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী ইব্রাহিম ফারুক, চশমা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী এসএম মহাসিন, বাউফল প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিরুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোসারফ হোসেন খান উপস্থিত ছিলেন।

এদিন বেলা ১১টায় উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে তদন্ত অনুষ্ঠিত হয়, যা চলে দুপুর ১টা পর্যন্ত তদন্ত কর্মকর্তা ওই আওয়ামী লীগ নেতার লিখিত বক্তব্য  নেন। এরপর এরপর কর্মকর্তা  সরেজমিন তদন্তের জন্য নাজিরপুর তাঁতেরকাঠি ইউনিয়নে যান। 

বাউফল উপজেলার নাজিরপুর তাঁতেরকাঠি ইউনিয়ন পরিষদের  নৌকা মার্কার প্রার্থীর একটি সভায় পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ নেতা জোবায়দুল হত রাসেল ইভিএম নিয়ে বিতর্কিত বক্তব্য দিয়ে সরকারের ভাবমূর্তি প্রশ্নবিদ্ধ করেন এবং নির্বাচন কমিশনকে বিপাকে ফেলে দেন। তার এ বক্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায়সহ বিভিন্ন ইত্তেফাক সহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ায় প্রকাশিত ও প্রচারিত হয়। এরপর গত ২৫ জুলাই নির্বাচন কমিশন ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদের নির্বাচন স্থগিত করেন।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি