বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ২ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

মানবপাচার চক্রের ৬ সদস্য গ্রেপ্তার

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২২, ১৭:৪১

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে মানবপাচার চক্রের একজন পুরুষ ও পাঁচ নারী সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। এসময় ভুক্তভোগী ৩ নারীকে উদ্ধার করে র‌্যাব। তাদেরকে উন্নত জীবনের প্রলোভন দেখিয়ে পার্শ্ববর্তী দেশে পাচারের জন্য পাচারকারী চক্রটি এই স্থানে নিয়ে আসেন। 

গ্রেপ্তারকৃত পাচারকারীরা হলেন-মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের হিল্লাপাড়ার তোফাজ্জল হোসেন ইরানের স্ত্রী ঝুমা আক্তার (২৮), রিপন শেখের স্ত্রী শারমিন আক্তার (২৯), নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের রহমানের মেয়ে মিনারা রিনা (৩৫), সিদ্ধিরগঞ্জের মৃত রাজ্জাক মিস্ত্রির ছেলে শাহজামাল (৪০), চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের চরচন্নার শাহজামালের স্ত্রী রাবেয়া আক্তার (২৭) ও নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজির মৃত শহিদুলের স্ত্রী কমলি খাতুন (৩২)। 

এসময় পাচারের কাজে ব্যবহৃত বেশ কয়েকটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে র‌্যাব। এ ছাড়াও তাদের কাছ থেকে ভিকটিমের ডেবিট কার্ড ও টাকা রাখার ব্যাগ উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এতথ্য জানান র‌্যাব ১১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল তানভীর মাহমুদ পাশা। তিনি জানান, গত বৃহস্পতিবার বিকালে একজন নারী ভিকটিম র‌্যাব-১১ ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তরে হাজির হয়ে লিখিতভাবে অভিযোগ করেন যে, মানব পাচারকারীরা তাকে বিউটি পার্লারে কাজ দেওয়ার কথা বলে যশোর বেনাপোল বর্ডারে নিয়ে যান। একপর্যায়ে তাকে পার্শ্ববর্তী দেশে কাঁটাতারের বেড়া অতিক্রম করে যাওয়ার জন্য বললে তিনি বুঝতে পারেন যে তাকে পার্শ্ববর্তী দেশে পাচার করা হচ্ছে। এরপর যেতে রাজি না হওয়ায় পাচারকারীরা তাকে মারধর করেন। একপর্যায়ে তিনি কৌশলে পালিয়ে বাসে করে যশোর থেকে নারায়ণগঞ্জ চলে আসেন। 

অভিযোগ পেয়ে র‌্যাব ১১ ভিকটিমের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি বাতানপাড়া (মসজিদ রোড) এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ৫ জন নারী ও ১ জন পুরুষ পাচারকারী সদস্যকে আটক করে। অভিযান পরিচালনাকালে আরও ২ জন নারী ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়, যাদের মধ্যে ১ জন অপ্রাপ্ত বয়স্ক। 

উদ্ধারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তাদেরও উন্নত জীবনের প্রলোভন দেখিয়ে পার্শ্ববর্তী দেশে পাচারের জন্য চক্রটি এই স্থানে নিয়ে আসেন। অপ্রাপ্ত বয়স্ক ভিকটিমকে ৪ আগস্ট রাতেই পার্শ্ববর্তী দেশে পাচার করার পরিকল্পনা ছিল। 

লে. কর্নেল তানভীর মাহমুদ আরও জানান, প্রাথমিক অনুসন্ধান ও আটকদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, এই চক্রটি দীর্ঘ দিন ধরে সহজ-সরল দরিদ্র নারীদের উন্নত জীবনের প্রলোভন দেখিয়ে অবৈধভাবে পার্শ্ববর্তী দেশে পাচার করে আসছে। এঘটনায় আটকদের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের ও আসামিদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ইত্তেফাক/মাহি