শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পায়ের যত যত্ন-আত্তি 

আপডেট : ১৩ আগস্ট ২০২২, ২০:৪৪

আজকাল পায়ের যত্ন নেওয়া খুব কঠিন। জুতো, পথের ধুলোবালি থেকে শুরু করে পায়ের নানা সমস্যা পায়ের ত্বক রুক্ষ করে তোলে। একইসঙ্গে পায়ে দেখা দেয় নানা উপসর্গ। রোজ রাতেই ফুটবাথ বা পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে পায়ের স্বাস্থ্য ঠিক রাখা কঠিন। মূলত ঝকঝকে পায়ের স্বাস্থ্য টিকিয়ে রাখা আরও কঠিন। সে কাজের জন্যে চাই নিয়মিত পায়ের যত্ন। সেজন্যেই নিয়মিত ক্লেনজিং, ময়েশ্চারাইজিং, টোনিং-এর জন্যে রুটিন বরাদ্দ করতে হবে।  

সেই রুটিনে আদতে কি করবেন? সে নিয়েই আজকের আয়োজন: 

ভেজা পা নয়

পা ভিজতে দেবেন না। সেটা যেভাবেই হোক। অনেকেরই পা ঘামে ভীষনভাবে। সেক্ষেত্রে জুতো কিংবা মোজা ভেজার সম্ভাবনা থাকে প্রচুর। তাই যখন মনে হবে পা ভিজে জবজবে হয়ে উঠছে তখনই পা শুকিয়ে ফেলার চেষ্টা করবেন। বিশেষত প্রতিদিন এক জুতো পরবেন না। বরং দুইজোড়া জুতো রাখবেন যাতে হাঁটাচলা সহজ হয়। একথা মনে রাখবেন, জুতো ঠিক রাখতে পারলে আপনার পায়েরও সুবিধা। ভেজা জুতোর ভেতর খবরের কাগজ বা টিস্যু মুড়ে রেখে দিন। এতে জুতো শুকোবে দ্রুত। 

পায়ে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারে পায়ের ত্বকের আর্দ্রতা বজায় থাকে

সুতির মোজা পরুন

পায়ের জন্যে এমন ফ্যাব্রিক বেছে নিন যা আপনার ত্বককে শ্বাস নিতে দেবে। সেক্ষেত্রে সুতির মোজাই সবচেয়ে আদর্শ। দিনে সাত আট ঘণ্টা মোজা পরার পর পরিষ্কার করে নিন। একই মোজা পরপর দুদিন পরবেন না।

জুতো মাপমতন কিনুন

আপনার জুতো পায়ে ঠিকঠাক আঁটে কিনা তা দেখে নিন। এমন জুতো পরবেন না যা পায়ে ফোস্কা কিংবা কড়া ফেলে দেয়। এসব জুতো থেকে শতহস্ত দূরে থাকবেন। টাইট জুতোর কারণে পায়ের রক্তচলাচল ব্যাহত হয়। এতে আপনার হাটতে যেমন অসুবিধে হয় তেমনই পায়ের ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। 

পায়ের যত্নে পামিস স্টোন দিয়ে নিয়মিত পায়ের মৃত ত্বকগুলো ঘষে তুলুন

সঠিক ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করাই শ্রেয়

পায়ে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারে পায়ের ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখা যায়। সেজন্যে প্রতিদিন প্রথমে পা ভালোমতো ধুয়ে পামিস স্টোন দিয়ে পায়ের মৃত ত্বকগুলো ঘষে তুলে নিন। তারপর ময়েশ্চারাইজার লাগান। এভাবে পায়ের ত্বক থাকবে ভালো।

ইত্তেফাক/আরএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন