সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

তালায় বদলে যাচ্ছে নাগরিক সেবা

আপডেট : ১৯ আগস্ট ২০২২, ১২:২৩

‘কমিউনিটি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম’ সফটওয়ারের মাধ্যমে বদলে যাচ্ছে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার নাগরিক সেবার চিত্র। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ২ নম্বর নগরঘাটা ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ডের নাগরিক সেবার ধরন বদলাচ্ছে। ডিজিটাল পদ্ধিতে প্রদান করা হবে এই ওয়ার্ডের নাগরিক সেবা। এতে একদিকে যেমন প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষকে নিয়ে বর্তমান সরকারের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে, অপরদিকে সাধারণ মানুষ কোনো রকম ভোগান্তি ছাড়াই সেবা পাবে। 

তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস সূত্রে জানা যায়, কোনো রকম ভোগান্তি ছাড়াই ডিজিটাল পদ্ধতিতে নাগরিক সেবা সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার বিশ্বাসের তত্ত্বাবধানে ২ নম্বর নগরঘাটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য, উপজেলা আইসিটি কর্মকর্তা ও ২৪ জন স্বেচ্ছাসেবকের একটি টিম দীর্ঘ ৬ মাস নগরঘাটা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের প্রায় পাঁচ শতাধিক পরিবার এবং এক হাজার নয়শত আটচল্লিশ ব্যক্তির মৌলিক তথ্য সংগ্রহ করে। 

পরবর্তী সময়ে সেগুলো যাচাই বাছাই করে টোটাল কমিউনিটি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সফটওয়ারে ইনপুট দেয়। পাশাপাশি উপজেলা পর্যায়ে সেসব দপ্তর ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডে বিভিন্ন প্রকার সেবা প্রদান করেছে সেগুলোকে নির্ধারিত জন্মনিবন্ধন নম্বর বা জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বরের বিপরীতে সংযোজন করা হয়েছে।

অফিস সূত্রে আরও জানা যায়, এই সফটওয়ার ব্যবহারের মাধ্যমে কোনো নির্দিষ্ট এলাকার সব মানুষের নাগরিক সেবা প্রদানের রেকর্ড সংরক্ষণ থাকবে। পাশাপাশি সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা, জনবান্ধব নাগরিকসেবা প্রদান, প্রাকৃতিক দুর্যোগে জনসম্পদের ঝুঁকিহ্রাস ও কার্যকারী পদক্ষেপ নিতে ভূমিকা রাখবে। 

এছাড়া সামাজিক বৈষম্য হ্রাস ও এলাকা কেন্দ্রিক বিশেষ কোনো চাহিদার প্রয়োজনীয়তা খুঁজে বের করতে সাহায্য করবে এ সফটওয়ার। দেশব্যাপী এ সফটওয়ার ব্যবহার করা গেলে দেশের অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনা সামষ্টিক তথ্য নির্ভর ও নির্ভুল পরিসংখ্যান প্রস্তুত করাও সম্ভব হবে। সরকারি কোনো সেবা একজন ব্যক্তি অবৈধভাবে একাধিকবার পেয়েছে কিনা সেটাও উঠে আসবে।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য লক্ষ্মীকান্ত সরকার বলেন, ‘এলাকার ২৪ জন শিক্ষিত ছেলে-মেয়ে নিয়ে একটা টিম গঠন করে দিকনির্দেশনা অনুযায়ী আমার ওয়ার্ডের প্রত্যেক ব্যক্তি ও পরিবারের তথ্য সংগ্রহ করেছি। পাশাপাশি আমি নিজে পুনরায় তথ্য যাচাই-বাছাই করে ইউএনও স্যারের কাছে জমা দিয়েছি। যা সফটওয়ারে ইনপুট প্রদান করা হবে।’

এবিষয়ে নগরঘাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান লিপু বলেন, ‘তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ ৮ নম্বর ওয়ার্ডে বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। এর মাধ্যমে সরকারি সেবা পেতে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি দূর হবে। উপযুক্ত ব্যক্তিরাই সেবার আওতায় আসবে।’

তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘টোটাল কমিউনিটি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সফটওয়ার ব্যবহার করে ব্যক্তির নির্ধারিত জন্মনিবন্ধন নম্বর বা জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর দিয়ে সরকারি দপ্তর থেকে নেওয়া সেবার তথ্য সহজেই পাওয়া যাবে। এছাড়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে যেসব সেবা ওই ব্যক্তি নিয়েছে তার আপডেট তথ্যও এখানে থাকবে। এই সফটওয়ারের সব তথ্য প্রতিবছরের জানুয়ারি মাসে হালনাগাদ করার সুযোগ রয়েছে।’ 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘সফটওয়ার ব্যবহার করে সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির বিভিন্ন প্রকার সরকারি যোগাযোগের দ্বৈততা এড়ানো সম্ভব হবে। যেকোন দুযোর্গের পূর্ব মুহূর্তে অগ্রাধিকার প্রাপ্ত ব্যক্তিকে খুঁজে বের করা ও জনসম্পদের ক্ষতি হ্রাস করা সম্ভব হবে। পাশাপাশি এ সফটওয়ার বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে ভূমিকা রাখবে। এর ব্যবহারের মাধ্যমে ভোগান্তি ছাড়াই সেবা প্রদান সহজ হবে।’

ইত্তেফাক/মাহি