শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ফেসবুকের বান্ধবীর আমন্ত্রণে এসে ‘সংঘবদ্ধ ধর্ষণের’ শিকার তরুণী 

আপডেট : ২৪ আগস্ট ২০২২, ১২:২৫

বান্ধবীর আমন্ত্রণে সিলেটে ঘুরতে এসে ময়মনসিংহের এক তরুণী (২৩) সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তাকে তিনদিন বাসায় আটকে রেখে ৭ জন মিলে ধর্ষণ করেছে। আর ধর্ষণে সহায়তা করেছে ওই তরুণীকে আমন্ত্রণকারী বান্ধবী। 

সিলেট শহরতলীর নাজিরেরগাঁওয়ের একটি বাড়িতে গত শুক্রবার (১৯ আগস্ট) থেকে রবিবার (২১ আগস্ট) পর্যন্ত এ ঘটনা ঘটে। এদিকে, ভুক্তভোগী তরুণী মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) সিলেট মহানগর পুলিশের জালালাবাদ থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ৩ জনকে ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার করেছে। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো ধর্ষণে সহায়তাকরী বান্ধবী জুলেখা ওরফে জুলি (১৯), জুবায়ের হোসেন (২৮) ও জয়নাল মিয়া (৪০)। গ্রেপ্তারকৃতদের একজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। অন্য দুজনের ১ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে এসএমপি এয়ারপোর্ট থানার ওসি মো. নাজমুল হুদা খান বলেন, ‘ফেসবুকে জুলেখার সঙ্গে পরিচয় ও বন্ধুত্ব হয় ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীর। স্বামী পরিত্যক্তা ওই তরুণীর বাড়ি ময়মনসিংহে। তিনি ঢাকার আজিমপুরে থাকেন। তিনি বান্ধবীর আমন্ত্রণে সিলেট ঘুরতে এসে বান্ধবীর সহযোগিতায় ধর্ষণের শিকার হন।’ 

ওসি আরও বলেন, ‘শুক্রবার রাত ৯টা থেকে রবিবার দিবাগত রাত প্রায় ৩টা পর্যন্ত নাজিরেরগাঁওয়ের জুবায়ের হোসেনের স্ত্রী জুলেখার ঘরে ভুক্তভোগীকে আটকে রাখে দুই দফায় ৭ জন ওই তরুণীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। আর এর সহযোগিতায় ছিলেন জুলেখা।’

এসএমপি উপ-কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ভুক্তভোগীকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের আদালতে পাঠিয়ে রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। এর মধ্যে জুবায়ের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। বাকি দুজনের একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। জড়িত অন্যদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযানে রয়েছে।’

ইত্তেফাক/মাহি