রোববার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

শেরপুরে পাচারকালে কষ্টিপাথরের বিষ্ণুমূর্তি উদ্ধার

আপডেট : ২৭ আগস্ট ২০২২, ১৮:২২

বগুড়ার শেরপুরে একটি কষ্টিপাথরের বিষ্ণুমূর্তি উদ্ধার করেছে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)। এসময় তিন চোরাকারবারিকেও গ্রেপ্তার করা হয়। শনিবার (২৭ আগস্ট) দুপুরে গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা দিয়ে বগুড়ায় আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

এর আগে শুক্রবার (২৬আগস্ট)রাত আট টায় শেরপুর পৌরশহরের টাউন বারোয়ারী তিন রাস্তার মোড় থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তাররা হলেন, বগুড়া সদরের নাটাইপাড়া এলাকার দীপক কুমার রায় (৪০), ঠেংগামারা বালাপাড়া গ্রামের আমিনুল ইসলাম (৩৮) ও শেরপুর উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের কদিমুকন্দ গ্রামের মনিন্দ্র নাথ সরকার (৫৮)।

বগুড়া জেলা ডিবি পুলিশের ইনচার্জ সাইহান ওলিউল্লাহ জানান, শুক্রবার শেরপুর উপজেলায় মাদক, অবৈধ অস্ত্র, চোরাচালান বিরোধীসহ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করছিলো ডিবি পুলিশের একটি দল। ওই সময় তারা জানতে পারে, শহরের টাউন বারোয়ারী তিন রাস্তার মোড়ে কয়েকজন একটি কষ্টিপাথর নিয়ে অবস্থান করছেন। এমন খবরে সেখানে অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং এক কষ্টিপাথরে থাকা তিনটি বিষ্ণুমূর্তি উদ্ধার করা হয়। তাদের কাছে থাকা চটের বস্তার ভেতর থেকে কষ্টিপাথরটি উদ্ধার করা হয়। এসময় ডিবি পুলিশের উপস্থিতি আঁচ করতে পেরে আরও তিনজন চোরকারবারি কৌশলে পালিয়ে যান। 

তিনি আরও জানান, কষ্টিপাথরসহ গ্রেপ্তার হওয়া তিনজনই চোরাকারবারি। এছাড়াও ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাওয়া তিনজনও চোরাকারবারি। কষ্টিপাথরের মূর্তিটি ভারতে পাচার করার চেষ্টা করছিলেন তারা। 

উদ্ধার করা কষ্টিপাথরের ওজন ৯৯ কেজি, দৈর্ঘ্য ৪৭ ইঞ্চি এবং প্রস্থ ২১ ইঞ্চি। বিশেষ অভিযানকালে কষ্টিপাথরের মূর্তিসহ তিনজন গ্রেপ্তার হয়েছেন। এছাড়া মামলার অন্য পলাতক অভিযুক্তদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি