বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

আবারও মিয়ানমারের ছোড়া দু’টি গোলা পড়লো বাংলাদেশে

আপডেট : ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:৫৪

আবারও মিয়ানমারের হেলিকপ্টার থেকে ছোড়া দু’টি গোলা বাংলাদেশের অভ্যন্তরে পড়েছে। শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম এলাকায় ৪০-৪১ নাম্বার পিলারের মাঝামাঝি স্থানে গোলা দু’টি পড়ে। বান্দরবানের পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তবে, এ বিষয়ে কোন কথা বলছে না সীমান্তের ওই এলাকার দায়িত্ব থাকা ৩৪ বিজিবির দায়িত্বশীলরা। 

এর আগে গত রবিবার মিয়ানমার থেকে ছোড়া দু’টি মর্টারশেল বাংলাদেশ-মিয়ানমার জিরো পয়েন্ট সংলগ্ন ঘুমধুম এলাকার জনবসতিতে পড়ে। পরে এ ঘটনায় দেশটির রাষ্ট্রদূত উ আং কিয়াউকে তলব করে কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ।

ঘটনার বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সালমা ফেরদৌস বলেন, ‘মিয়ানমারের হেলিকপ্টার থেকে ছোড়া দু’টি গোলা বাংলাদেশের অভ্যন্তরে এসে পড়েছে বলে জেনেছি। এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক অবস্থায় রয়েছে।’

ছবি: সংগৃহীত

স্থানীয় সূত্র আরও জানিয়েছে, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমের তুমব্রু সীমান্তের রেজু আমতলী বিজিবি বিওপির আওতাধীন সীমান্ত ৪০-৪১ নাম্বার পিলারের মাঝামাঝি স্থানে মিয়ানমার সীমান্তের ওপারে সেনাবাহিনীর দু’টি যুদ্ধবিমান এবং দু’টি হেলিকপ্টার টহল দেয়। সে সময় তাদের যুদ্ধবিমান থেকে প্রায় ৮ থেকে ১০টি গোলা ছোড়া হয়। এছাড়া হেলিকপ্টার থেকেও ছোড়া হয় আনুমানিক ৩০ থেকে ৩৫টি গুলি। এ সময় সীমান্ত পিলার ৪০ বরাবর আনুমানিক ১২০ মিটার বাংলাদেশের অভ্যন্তরে যুদ্ধবিমান থেকে ছোড়া দু’টি গোলা পড়ে।

এ বিষয়ে জানতে কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক কর্নেল মো. মেহেদি হোসাইন কবিরের সঙ্গে মুঠোফোনে কল দিলে তিনি রিসিভ করেননি।

তবে, মর্টার শেল ‘নিক্ষেপের’ পর এবার মিয়ানমারের যুদ্ধবিমান ও হেলিকপ্টার থেকে ছোড়া গোলা বান্দরবানে বাংলাদেশের সীমানার ভেতরে এসে পড়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বান্দরবানের পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় নজরে রেখেছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। 

ইত্তেফাক/এএএম