শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

মোংলা-সুন্দরবনে বৃষ্টি অব্যাহত, জোয়ারে তলাচ্ছে নিম্নাঞ্চল 

আপডেট : ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৩:৫১

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপটি স্থল নিম্নচাপে পরিণত হয়ে ভারতের দক্ষিণ মধ্যপ্রদেশ এলাকায় অবস্থান করছে। এটি স্থলভাগ দিয়ে ক্রমান্বয়ে দুর্বল হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মোংলা আবহাওয়া অফিস ইনচার্জ অমরেশ চন্দ্র ঢালী। রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তিনি এতথ্য জানান। 

কর্মকর্তা বলেন, ‘মোংলা সমুদ্র বন্দরসহ সংলগ্ন সাগর ও সুন্দরবন উপকূলে ব্যাপক বৃষ্টিপাত হচ্ছে। তবে বাতাসের গতিবেগ রয়েছে ঘণ্টায় ১৫ নটিক্যাল মাইল। গত ২৪ ঘণ্টায় মোংলায় ৩০ মিলিমিটার, আর সোমবার ভোর ৬টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত ২১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। এমন বৈরি আবহাওয়া আজ ও কাল মঙ্গলবার থাকবে। পরশুদিন (১৪ সেপ্টেম্বর) থেকে আবহাওয়া স্বাভাবিক হয়ে আসবে। 

আবহাওয়া কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘পূর্ণিমা ও নিম্নচাপের প্রভাবে স্বাভাবিকের তুলনায় কয়েক ফুট উচ্চতার জ্বলোচ্ছাসে প্লাবিত হবে উপকূলীয় বিভিন্ন এলাকা। এদিকে রাত থেকে শুরু হওয়া টানা বৃষ্টিতে পৌর শহর ও উপজেলার বিভিন্ন নিম্নাঞ্চল তলিয়ে গেছে।’ 

সরেজমিনে দেখা যায়, বৃষ্টিপাতে শহরের বেশিরভাগ দোকানপাট বন্ধ রয়েছে, রাস্তাঘাটে লোকজনও নেই তেমন। 

এদিকে ভোর থেকে দুবলার চর এলাকায় বৃষ্টিপাত ও ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাচ্ছে। সাগরে জোয়ার শুরু হওয়ায় পানির চাপও রয়েছে বেশি বলে জানিয়েছেন দুবলা টহল ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিলিপ মজুমদার।  

তিনি বলেন, ‘গতকাল ৩ ফুটের জ্বলোচ্ছাসে প্লাবিত হয়েছে দুবলাসহ পুরো সুন্দরবন। অস্বাভাবিক জোয়ারে আজও তলিয়ে গেছে সুন্দরবনের করমজল পর্যটন ও বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্র।’

জোয়ারে বাড়ছে পানি

করমজলের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আজাদ কবির বলেন, ‘গতকাল ৩ ফুটের বেশি পানি হয়েছিল, আজ পানি আরও বাড়ছে। এতে পুরো জোয়ারের সময় ৩ থেকে ৪ ফুট পানি বেশি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।’ 

খুব বেশি বাতাস না থাকায় বৃষ্টিতে মোংলা বন্দরে পণ্য ওঠানামা ও পরিবহনে খুব বেশি সমস্যা হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (হারবার ও মেরিন) ক্যাপ্টেন আ. ওয়াদুদ তরফদার। তিনি বলেন, ‘বৃষ্টিতে জাহাজের কাজ চলে থাকে, কিন্ত বাতাস বেশি হলে তা ব্যাহত হয়।’ আর ৩ নম্বর সংকেতে সাধারণত বন্দর অপারেশনাল কার্যক্রম স্বাভাবিকই থাকে বলে জানান তিনি।

ইত্তেফাক/এইচএম