সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

হোমনায় সিলিন্ডারের আগুনে বসতঘর পুড়ে ছাই, আহত ৫

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:৩০

হোমনায় গ্যাসের সিলিন্ডার থেকে সৃষ্ট আগুনে একটি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় স্থানীয়রা আগুন নেভান। এতে ৫ জন স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী আহত হয়েছেন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। দুইজনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা রাতে উপজেলার জয়পুর গ্রামের দরিদ্র আ. লতিফ মিয়ার ঘরে আগুন লাগে।

উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ মো. উসমান গনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘স্থানীয়রাই আগুন নিভিয়ে ফেলেছেন। সিলিন্ডার গ্যাস থেকে আগুনের সূত্রপাত। আগুনে অন্তত ৩ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।’  

আহতরা হলেন একই গ্রামের মো. সজীব (২৩), মো. জালাল উদ্দিন (২২), মো. সাইফুল (২০), সাইদুল ইসলাম বাবুল (৩৫) ও মো. শাহিন (৩৮)। হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত মেডিক্যাল অফিসার মো. আমিনুল ইসলাম জানান, আহত সাইফুল ইসলামকে হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। 

এদিকে, তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত মেডিক্যাল অফিসার মো. ইকবাল হোসেন জানান, মো. সজিব ও জালাল উদ্দিনকে অক্সিজেন লাগিয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। 

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তাইজুল ইসলাম মোল্লা বলেন, ‘দরিদ্র লতিফ মিয়ার ঘরের রান্না করার গ্যাস সিলিন্ডার থেকেই আগুনের সূত্রপাত। এতে তার বসতঘর ও আসবাবপত্রসহ সব পুড়ে গেছে।’

আহত স্বেচ্ছাসেবী সাইদুল ইসলাম বাবুল জানান, রোববার রাতে আ. লতিফ মিয়ার স্ত্রী ঘরের ভেতর সিলিন্ডার গ্যাসে রান্নার জন্য আগুন জ্বালাচ্ছিলেন। চুলার সুইচ দিয়ে দেশলাই জ্বালানোর সঙ্গে সঙ্গে দাউ দাউ করে গ্যাসের আগুন উপরে উঠে যায়। এতে তিনি আহত না হলেও ঘরে পাটখড়ি থাকায় তাতে আগুন ধরে মুহূর্তেই সারাঘরে ছড়িয়ে পড়ে। আগুন নেভাতে গিয়ে তিনিসহ আহত হয়েছেন জয়পুর গ্রামের পাচঁ যুবক। তাদের মধ্যে দুইজনকে তিতাস এবং অন্যদের হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তারা এখন মোটামুটি আশঙ্কামুক্ত।

ইত্তেফাক/এইচএম