বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বিশ্ববিদ্যালয়ে গণরুম শব্দটি শুনতে চাই না: জাবি উপাচার্য

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৩:৩৪

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্য অধ্যাপক মো. নূরুল আলম বলেছেন, ‘অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় বিশ্ববিদ্যালয়ে ছেলেদের তিনটি ও মেয়েদের তিনটি আবাসিক হল নির্মাণের কাজ প্রায় শেষ। আগামী অক্টোবরের শেষে অথবা নভেম্বর মাসে এক হাজার আসনবিশিষ্ট দু’টি হল উদ্বোধন করতে পারবো। এটি হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণরুমের যে সংকট, সেটি নির্মূল করা সম্ভব হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে গণরুম শব্দটি শুনতে চাই না।’

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে সংগঠনের উপদেষ্টার দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় সাংবাদিক সমিতির বিদায়ী উপদেষ্টা অধ্যাপক শেখ তৌহিদুল ইসলামকে বিদায়ী সংবর্ধনা ও নতুন উপদেষ্টা পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ফরিদ আহমদকে বরণ করে নেওয়া হয়।

উপাচার্য বলেন, আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন আয়োজনের উদ্যোগ নিয়েছি। গত ১৮ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটের সভায় সমাবর্তনের বিষয়টি অনুমোদিত হয়েছে। রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য আব্দুল হামিদ ফেব্রুয়ারি মাসের যে তারিখে সময় দেবেন সেদিনই সমাবর্তনের আয়োজন করা হবে।

তিনি আরও বলেন, ইতিমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনদের সঙ্গে আলোচনা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার তৈরির প্রাথমিক কাজ সম্পন্ন করেছি। শিগগিরই বিভাগগুলোর সভাপতিদের সঙ্গে কথা বলে ক্যালেন্ডার চূড়ান্ত করবো, যাতে বিশ্ববিদ্যালয়ে সেশনজট না থাকে।

জাবি সাংবাদিক সমিতির সভাপতি বেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আলকামা আজাদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) শেখ মো. মনজুরুল হক ও ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান প্রমুখ। 

ইত্তেফাক/এআই