রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হলেন কুমিল্লা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান

আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৮:৫৯

কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান পদে জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান বাবলু। তিনি কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি।

চেয়ারম্যান ছাড়াও সদস্য পদে ৫টি সাধারণ ওয়ার্ড ও একটি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের একজনসহ ৬ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেন। চেয়ারম্যান ও সদস্য পদের এই ৭ প্রার্থীর সবাই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী সদস্যরা হলেন- ৩ নম্বর ওয়ার্ডে (দাউদকান্দি) উত্তর জেলা যুবলীগের সদস্য নাসিম ইউসুফ, ৯ নম্বর ওয়ার্ডে (আদর্শ সদর) কুমিল্লা মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক আবদুল্লাহ আল-মাহমুদ সহিদ, ১২ নম্বর ওয়ার্ডে (মনোহরগঞ্জ) মনোহরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আবদুল কাইয়ুম চৌধুরী, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে (লাকসাম) লাকসাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. হাবিবুর রহমান মজুমদার, ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে (সদর দক্ষিণ) সদর দক্ষিণ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম, সংরক্ষিত ৫ নম্বর ওয়ার্ডে (লাকসাম, মনোহরগঞ্জ ও লালমাই) মনোহরগঞ্জ উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি তানজিনা আক্তার।

প্রতীক বরাদ্দের দিন সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান সাংবাদিকদের বলেন, এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দুইজন প্রার্থী ছিলেন। তাদের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. দুলাল মিয়ার মনোনয়নপত্র বাছাই প্রক্রিয়ার সময় বাতিল হয়েছে, তিনিও কোনো আপিল দায়ের করেননি। তাই চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমানকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। একইভাবে সাধারণ ৫টি ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত একটি ওয়ার্ডে একজন করে প্রার্থী থাকায় তাদেরকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।

সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মঞ্জুরুল আলম বলেন, কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৭টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে ১২টি ওয়ার্ডে এবং ৬টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মধ্যে ৫টিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ভোটের মাঠে ১২টি সাধারণ ওয়ার্ডে ৪৭ জন এবং ৫টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ১৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় করছেন। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ২ হাজার ৬৮০ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ হাজার ৫৩ জন এবং নারী ভোটার রয়েছেন ৬২৭ জন। আগামী ১৭ অক্টোবর সকাল ৯টা হতে বেলা ২টা পর্যন্ত ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

ইত্তেফাক/এসএস