শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পাকিস্তানে নিরাপত্তা পরিস্থিতির অবনতি, বিচারপতির ক্ষোভ

আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:৫৩

সন্ত্রাসীদের সাথে আলোচনায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের সুপ্রীম কোর্টের জ্যেষ্ঠ বিচারক বিচারপতি কাজী ফয়েজ ঈসা। তিনি প্রশ্ন তুলে বলেছেন, তাদের কী প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে? কারা জড়িত আছে তাদের সঙ্গে? এছাড়া সন্ত্রাসীদের সঙ্গে কোনো ধরনের আলোচনা হচ্ছে কিনা সেটি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যম ডন।

তিনি পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টের একজন সিনিয়র বিচারপতি। এর আগে তিনি বেলুচিস্তান হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি ছিলেন।

ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত শনিবার পাকিস্তানের আইন ও বিচার কমিশনের আয়োজিত নবম বিচারিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন বিচারপতি কাজী ফয়েজ ঈসা। সেখানেই এসব মন্তব্য করেন তিনি।

সংবাদমাধ্যম বলছে, বিচারিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখার সময় বিচারপতি ঈসা সন্ত্রাসীদের সাথে আলোচনা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেন। একইসঙ্গে কারা আলোচনা করছে এবং সেসব আলোচনায় সন্ত্রাসীদের কী প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে সেটি নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়ার সোয়াতের পরিস্থিতি নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেন এই বিচারপতি।

এসময় বিচারপতি ঈসা জিজ্ঞাসা করেন, কোথায় আলোচনা হচ্ছে এবং এই আলোচনা করতে কে তাদের অনুমোদন দিয়েছে? তিনি প্রশ্ন তোলেন, ‘আমরা কি তাদের (সন্ত্রাসীদের) বলছি ‘দয়া করে ছয়টি নয়, পাঁচটি স্কুলে বোমা মারুন এবং অনুগ্রহ করে কিছু টাকা ও অস্ত্র নিন।’

সম্মেলনে ভাষণ দেওয়ার সময় বিচারপতি ঈসা উদ্বেগ প্রকাশ করেন, পাকিস্তানে প্রত্যেকের জীবনের অধিকার এবং বাধ্যতামূলক শিক্ষার সাংবিধানিক নিশ্চয়তা আক্রমণের মুখে পড়েছে।

পাকিস্তানের বর্তমান আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির ভয়াবহ চিত্র তুলে ধরার জন্য সম্মেলনে কাজী ফয়েজ ঈসা ১৯৭০ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত গ্লোবাল টেররিজম ডেটাবেসের তথ্যও শেয়ার করেন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হামলার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি জানান, পাকিস্তানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রায় এক হাজারের মতো হামলা হয়েছে।

ইত্তেফাক/এএইচপি