বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

সম্ভাবনা নেই ভারত-পাকিস্তান টেস্ট সিরিজের

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৬:২৬

নিরপেক্ষ ভেন্যু হিসেবে নিজেদের মাটিতে দুই চিরপ্রতিন্দ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানের টেস্ট সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছিল ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। এরপর থেকেই শুরু হয়েছে এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যকার টেস্ট সিরিজ নিয়ে যত জল্পনা-কল্পনা। কিন্তু সেই জল্পনা-কল্পনায় এবার পানি ঢেলে দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)।

বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, আপাতত ভারত-পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক সিরিজ হবার কোনও সম্ভাবনা নেই।

বিসিসিআইয়ের ওই কর্মকর্তা আরো জানান, 'শুধুমাত্র আর্থিক লাভের জন্যই এ রকম একটি সিরিজ আয়োজন করতে চাচ্ছে ইসিবি। তবে আপাতত পাক-ভারত দ্বিপাক্ষিক সিরিজের কোনো ধরনের সম্ভাবনা নেই।' 

তিনি আরো বলেন, ‘পিসিবির সঙ্গে ভারত-পাক সিরিজ আয়োজন বিষয়ে ইসিবির দেওয়া প্রস্তাব  খুবই অদ্ভুত। তবে পাকিস্তানের বিপক্ষে আপাতত ভারত কোনও সিরিজ খেলবে কি-না, তা বিসিসিআই ঠিক করতে পারে না। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবে আমাদের কেন্দ্রীয় সরকার।’

২০০৭ সালে সর্বশেষ দ্বিপাক্ষিক টেস্ট সিরিজ খেলেছিলো ভারত ও পাকিস্তান। আর ২০১২ সালে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে লড়াই করেছিলো তারা। এরপর থেকে আর কোনো দ্বিপাক্ষিক সিরিজে মুখোমুখি হয়নি এই দুই দল।

সন্ত্রাসবাদ ও রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সিরিজ হচ্ছে না।  শুধুমাত্র আইসিসি বা এসিসির কোন আসরেই দেখা মেলে ভারত-পাকিস্তান লড়াই।তাই এবার ভারত-পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছে ইসিবি। 

টাইমস অব ইন্ডিয়া ও দ্য টেলিগ্রাফের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিজেদের মাটিতে ভারত-পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক টেস্ট সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছে ইসিবি। চলমান টি-টোয়েন্টি সিরিজে পাকিস্তান সফরে আছেন ইসিবি’র ডেপুটি চেয়ারম্যান মার্টিন ডার্লো। এই সিরিজ চলাকালীনি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে (পিসিবি)  ভারত-পাকিস্তান টেস্ট সিরিজের প্রস্তাব দিয়েছে ইসিবি। প্রস্তাব পাওয়ার ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে পিসিবিও।

ইসিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়, ভারত-পাকিস্তানে সিরিজ মানেই বড় ধরণের অর্থ প্রাপ্তি। এই দুই প্রতিপক্ষের ম্যাচে স্পনসরশিপ আয় এবং টেলিভিশন দর্শকদের আকর্ষণ অনেক বেশি। ইংল্যান্ডে ভারত-পাকিস্তানের অনেক মানুষ বসবাস করায় এই সিরিজটি হলে দর্শকসংখ্যা অনেক বেশি হবে, টিকিটের অনেক বেশি চাহিদা থাকবে।

পিসিবির সঙ্গে আলোচনা করে বিসিসিআয়ের কাছে সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাব দিলেও সেই প্রস্তাবে কোন আগ্রহ দেখায়নি বিসিসিআই।

ইত্তেফাক/এসএস