সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

আবারও বিবর্ণ সাকিব, গায়ানাকে উড়িয়ে ফাইনালে জ্যামাইকা

আপডেট : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:১৮

সিপিএলের মাঝপত্রহে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েই দারুণ পারফরম্যান্সে দলকে তুলেছিলেন প্লে-অফে। তবে  জায়গায় এসেই যেন কাজের কাজটি করতে পারলেন না সাকিব আল হাসান আব তার দল গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্স। প্লে-অফে টানা দুইটি কোয়ালিফায়রেই হেরে ফাইনালে উঠতে ব্যর্থ সাকিবের দল গায়ানা। 

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে জ্যামাইকা তালাওয়াসের কাছে ৩৭ রানে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিতে হয়েছে গায়ানাকে।

প্রথম পর্বের শেষ চার ম্যাচে টানা জয় তুলে নিয়ে লীগ টেবিলের দুই নম্বরে থেকে প্লে-অফে উঠেছিলো সাকিবের দল। শেষ দুই ম্যাচ তো সাকিব প্রায় একাই জিতিয়েছিলেন নিজের অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে। বিপত্তিটা বাধলো প্লে-অফের লড়াইয়ে। না পারলেন সাকিব, না পারলো তার দল গায়ানা।

প্রথম কোয়ালিফায়ারে বার্বাডোজ রয়্যালসের বিপক্ষে বড় ব্যবধানে হারের পর আজ দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে জ্যামাইকা তালওয়াসের কাছে ৩৭ রানে হেরেছে গায়ানা।  

প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েই যেন ভুল করলো গায়ানা। জ্যামাইকার বিপক্ষে এক শামারাহ ব্রুকসের ব্যাটিং তান্ডবের কাছেই হেরে গেছে গায়ানা। গায়ানার বোলারদের ওপর তান্ডোব চালিয়ে ৫২ বলে ৭ চার আর ৮ ছক্কায় অপরাজিত ১০৯ রানের এক অতিমানবীয় ইনিংস খেলেই জ্যামাইকাকে রানের পাহাড়ে তুলে দেয় ব্রুকস। ইমাদ ওয়াসিমও যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন ব্রুকসকে। করেছেন ১৫ বলে ৪১ রনের টর্নেডো ইনিংস খেলেছেণ এই পাক ব্যাটার। এই দুজনের ব্যাটিং ঝড়েই ২০ ওভার শেষে ৪ উইকেটে ২২৬ রানের পাহাড় দাঁড় করায় জ্যামাইকা। বল হাতে এদিন বিবর্ণ সাকিব ৩ ওভার বল করে দিয়েছেন ৩০ রান।

২২৭ রানের বিশাল লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই মাত্র ১৯ রানে ওপেনার পল স্টার্লিংকে হারায় গায়ানা। এরপর রহমানুল্লাহ গুরবাজ ও শাই হোপ মিলে দলকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন ভালোই। ৫ ওভারেই ৫০ রান তুলে আউট হয়ে যান গুরবাজ। সঙ্গীর বিদায়ের পর আর বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি শাই হোপও।

বোলিংয়ে ব্যর্থ সাকিব এদিন ব্যাটিংয়েও জ্বলে উঠতে পারেননি। ৬ বলে মাত্র ৫ রান করেই বিদায় নেন বাংলাদেশের অধিনায়ক।

এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েছে গায়ানা। এক প্রান্তে দাড়িয়ে কিমো পল চেষ্টা করে গেলেও পাননি যোগ্য সঙ্গ। দলের সপ্তম ব্যাটার হিসেবে আউট হওয়ার আগে পল করেন দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৬ রান। শেষ দিকে ওডেন স্মিথ আর গুদাকেশ মোতি দ্রুত রান তোলার চেষ্টা করলেও লাভ হয়নি কিছুতেই। 

নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৮৯ রানেই থামে গায়ানার ইনিংস। ৩৭ রানে জিতে ফাইনালে উঠে যায় জ্যামাইকা।

আগামী ১ অক্টোবর ভোর ৫টায় শিরোপার লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে বার্বাডোজ রয়্যালস ও জ্যামাইকা তালাওয়াস।

ইত্তেফাক/এসএস