বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পুতিন কি লুকানোর চেষ্টা করছে?

আপডেট : ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১২:৫৬

সম্প্রতি ইউক্রেনে রুশ হামলার সাত মাস পার হয়ে গেছে। কিছুদিন আগে ইউক্রেনের চারটি অঞ্চল রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ইউক্রেনীয় বাহিনী এই ঘোষণার পর রাশিয়ার দখলকৃত এলাকায় পাল্টা হামলা জোরদার করেছে। নিজেদের ভূখণ্ড পুনরুদ্ধারে তারা কিছু ক্ষেত্রে অগ্রগতি অর্জন করেছে। এমন প্রেক্ষাপটে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে সিএনএনের আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক সম্পাদক নিক রবার্টসন এক বিশ্লেষণে বলেন, রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের সময় ফুরিয়ে আসছে। আর তিনি তা জানেন।

নিক রবার্টসন লিখেছেন, সময় ফুরিয়ে আসার বিষয়টি জানা সত্ত্বেও ইউক্রেনে হামলা অব্যাহত রেখেছেন পুতিন। শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) তিনি ইউক্রেনের চারটি অঞ্চল রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করার ঘোষণা দেন।

পুতিন ঘোষণায় জানান, ইউক্রেনের লুহানস্ক, দোনেৎস্ক, খেরসন ও জাপোরিঝঝিয়া চিরকালের জন্য রাশিয়ার অংশ হয়ে যাবে। ইউক্রেন যুদ্ধে পুতিন বিজয় দাবি করতে মরিয়া হয়ে আছেন। তবে তিনি এখন শান্তির কথা বলছেন। কিন্তু পাশাপাশি তিনি একটি বিপজ্জনক রাজনৈতিক খেলা খেলছেন।

ইউক্রেনকে অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছেন পুতিন। তিনি কিয়েভের সঙ্গে আলোচনার টেবিলে বসতে আহ্বান জানিয়েছেন। তবে পুতিন এ কথাও বলেছেন, তারা ইউক্রেনের চার অঞ্চলে গণভোটের ফল নিয়ে কোনো আলোচনা করবেন না। এ সিদ্ধান্ত হয়ে গেছে। রাশিয়া জনগণের রায়ের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করবে না। অর্থাৎ ইউক্রেনের চারটি অঞ্চল নিয়ে আর কোনো কথা বলতে চাচ্ছেন না পুতিন।

ইউক্রেনের চারটি অঞ্চল রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করার ঘোষণা দিলেও পুতিন একটি বিষয় লুকানোর যথাসাধ্য চেষ্টা করছেন। আর তা হলো, তিনি ইউক্রেন যুদ্ধে হেরে যাচ্ছেন।
মস্কোভিত্তিক ক্রেমলিন-সমর্থিত রাশিয়ান ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স কাউন্সিলের প্রধান আন্দ্রে কর্তুনভের বরাত দিয়ে সিএনএন জানায়, প্রেসিডেন্ট পুতিন যত দ্রুত সম্ভব এই পুরো বিষয় (যুদ্ধ) শেষ করতে চান। 

ইত্তেফাক/ডিএস/এআই