মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

গরু-ভেড়া বায়ু নিঃসরণ করলেই দিতে হবে ট্যাক্স! 

আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০২২, ১৬:১১

রাতে খাবার টেবিলে বসে আপনি ঢেকুর তুললে বা পায়ুপথে বায়ু নিঃসরণ করলে লজ্জায় পড়তে পারেন। কিন্তু নিউজিল্যান্ডে আপনি যদি গরু বা ভেড়ার মালিক হয়ে থাকেন তাহলে আপনার গরুর ঢেকুর ও পায়ুপথে বায়ু নিঃসরণের জন্য আপনাকে দেশটির সরকারকে কর দিতে হতে পারে। এমনই এক পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে দেশটির সরকার। খবর সিএনএনের।

গত মঙ্গলবার দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন এক সংবাদ সম্মেলনে নিশ্চিত করেছেন, তার সরকার জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের অংশ হিসেবে গবাদিপশুর নির্গমনের জন্য মালিক কৃষকদের ওপর কর আরোপের প্রস্তাবটি সামনে এগিয়ে নেবে। 

আরডার্ন আরও বলেন, এটি নিউজিল্যান্ডের একটি কম নির্গমনের ভবিষ্যতের দিকে অগ্রসর হওয়ার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। সেইসঙ্গে ২০২৫ সাল থেকে কৃষি খাতের নির্গমনের ওপর মূল্য নির্ধারণের ব্যাপারে তার সরকারের অঙ্গীকারের অংশ। 

সিএনএন বলছে, বিশ্বের প্রধান পশুসম্পদ ও মাংস রপ্তানিকারক দেশ হচ্ছে নিউজিল্যান্ড। দেশটিতে প্রায় এক কোটি 'গরু' এবং দুই কোটি ৬০ লাখ ভেড়া আছে। গবাদিপশুর প্রাকৃতিক নির্গমন থেকে উৎপাদিত গ্রিনহাউস গ্যাস দেশটির সবচেয়ে বড় পরিবেশগত সমস্যাগুলোর মধ্যে একটি। 

দেশটির সরকারের পরিকল্পনা মতে, কৃষকদের গবাদিপশু থেকে নির্গত গ্যাসের জন্য কর দিতে হবে। এর মধ্যে রয়েছে গবাদিপশুর মূত্র থেকে আসা নাইট্রাস অক্সাইড এবং গরুর ঢেকুর ও পায়ুপথ থেকে নির্গত বায়ু থেকে আসা মিথেন গ্যাস।

নতুন এই পদক্ষেপের মাধ্যমে নিউজিল্যান্ডের কৃষি খাতের নির্গমন কমাবে। সেইসঙ্গে নিউজিল্যান্ডের রপ্তানি ‘ব্র্যান্ড’ বৃদ্ধির মাধ্যমে পণ্যকে আরও টেকসই করে তুলবে বলে জানান আরডার্ন।

তিনি আরও বলেন, বিশ্বের আর কোনো দেশেই এখন পর্যন্ত কৃষিখাতে নির্গমন হ্রাস ও মূল্য নির্ধারণের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। তাই আমাদের দেশের কৃষকরা প্রথম এই পদক্ষেপে লাভবান হতে যাচ্ছেন।

দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, নতুন এই পদক্ষেপ থেকে পাওয়া অর্থের পুরোটাই দেশটির গবেষণা, নতুন প্রযুক্তি ও জলবায়ুবান্ধব কৌশল গ্রহণকারী কৃষকদের জন্য ভর্তুকিতে ব্যয় করা হবে। 

ইত্তেফাক/এসআর

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন