বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পুলিৎজার জয়ী সাংবাদিককে দিল্লিতে আটকানো নিয়ে যা বললো যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২২, ১১:৩৪

পুলিৎজার পুরস্কার বিজয়ী কাশ্মীরি সাংবাদিক সানা ইরশাদ মাট্টুকে যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে দিল্লি বিমানবন্দরে বাধা দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) তিনি অভিযোগ করেন, পুলিৎজার পুরস্কার নিতে যুক্তরাষ্ট্র যাওয়ার সময় দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী বিমানবন্দরে তাকে বাধা দেওয়া হয়। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায় ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম দ্য ওয়্যার।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সানাকে যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে বাধা দেওয়ার বিষয়ে মার্কিন প্রশাসন অবগত বলে জানিয়েছেন দেশটির স্টেট ডিপার্টমেন্টের একজন কর্মকর্তা।

যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র বেদান্ত প্যাটেল এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, মাট্টুকে যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে বাধা দেওয়ার বিষয়ে তারা অবগত। এ বিষয়ে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। তারা সংবাদপত্রের স্বাধীনতাকে সমর্থন করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সংবাদপত্রের স্বাধীনতার প্রতি শ্রদ্ধাসহ গণতান্ত্রিক মূল্যবোধগুলো অক্ষুণ্ণ রাখার অঙ্গীকারই হচ্ছে মার্কিন-ভারত সম্পর্কের অন্যতম ভিত্তি।

সানা ইরশাদ মাট্টু একজন ফ্রিল্যান্স ফটোসাংবাদিক। তিনি বার্তা সংস্থা রয়টার্সের ভারতীয় সাংবাদিকদের দলে কাজ করেন। ভারতে করোনা মহামারির সময় ফিচার ফটোগ্রাফির জন্য পুলিৎজার পুরস্কার জিতেছেন তিনি।

সাংবাদিকদের আন্তর্জাতিক সংগঠন কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্ট এক বিবৃতিতে মাট্টুকে পুলিৎজার পুরস্কারের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে যুক্তরাষ্ট্র যেতে বাধা না দিতে ভারতের কর্মকর্তাদের অনুরোধ করেছে।

কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টের এশিয়ার প্রোগ্রাম সমন্বয়কারী বেহ লিহ ই জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্ট থেকে জানান, সানাকে বিমানবন্দরে আটকে দেওয়ার যৌক্তিক কোনো কারণ নেই। তার কাছে ভ্রমণ সংক্রান্ত সকল সঠিক কাগজ রয়েছে। তিনি সাংবাদিকতার সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার পুলিৎজার পেয়েছেন। তাকে এভাবে আটকানোর কোনো কারণ নেই। ভারত প্রশাসনের এই সিদ্ধান্ত স্বেচ্ছাচারী ও বাড়াবাড়ি। ভারতীয় কর্তৃপক্ষকে অবিলম্বে সানার বিরুদ্ধে সব ধরনের হয়রানি ও ভীতি প্রদর্শন বন্ধ করতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ইত্তেফাক/ডিএস/এসকে