সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

নারীর প্রজনন স্বাস্থ্য সচেতনতায় 'বি অ্যা ওয়ান্ডার উইম্যান'

আপডেট : ০৯ নভেম্বর ২০২২, ২২:০৫

নারীর প্রজনন স্বাস্থ্য সম্পর্কে এখনও সমাজে সেভাবে আলোচনা হয় না। নারীরা সঠিক জ্ঞানের অভাবে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়ে। যা কখনও মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়ায়। অন্য অনেক কিছুর মতো সচেতনতার অভাব ও কুসংস্কারের ফলে নারীরা পিছিয়ে আছে। আর এ অদৃশ্য শেকলে আটকে থাকা নারীর প্রজনন স্বাস্থ্যের সুরক্ষা ও প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ে সার্ভিস ফর হিউম্যান বিয়িং অর্গানাইজেশন (এসএইচবিও) আয়োজন করেছে দিনব্যাপী এক  কর্মশালা।

সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এসএইচবিও’র ‘উইমেন অ্যাম্পাওয়ারমেন্ট’ প্রকল্পের অধীনে নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার খলিলুর রহমান ডিগ্রি কলেজ অডিটোরিয়ামে সম্প্রতি দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয় ‘বি অ্যা ওয়ান্ডার ওম্যান’ শীর্ষক কর্মশালা। প্রজনন স্বাস্থ্য ছাড়াও সমাজের উন্নয়ন ও অগ্রগতির জন্য নারীদের আত্মসচেতনতা, আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, অনলাইন ও অফলাইন নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, শিক্ষাখাতে এগিয়ে যাওয়া সহ সমসাময়িক একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে বিষয়ভিত্তিক আলোচনা করেন সোনাইমুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইসমাইল হোসেন, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাহমুদুল হাসান, খলিলুর রহমান ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মো. নাজিম উদ্দিন ও জেনারেল ফিজিশিয়ান ডা. হোসনে জান্নাত নিশি।

মো. ইসমাইল হোসেন তার আলোচনায় বলেন, ‘সমাজের উন্নতিতে স্বাধীনভাবে অবদান রাখতে নারীদের এগিয়ে আসতে হবে। নারীর স্বাধীনতা খর্ব হওয়ার প্রথম ধাপ হলো  বাল্যবিবাহ। এটি রোধ করতে হবে। এজন্য প্রয়োজন নারী শিক্ষার জাগরণ। একজন আত্মনির্ভর ও শিক্ষিত নারী নিজের পাশাপাশি পরিবার ও সমাজকে এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।’

অনুষ্ঠানের মূল বিষয় নারীর প্রজনন স্বাস্থ্যের সুরক্ষা ও প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ে আলোচনা করেন ডা. হোসনে জান্নাত নিশি।

ইত্তেফাক/এসটিএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন