রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

দুদিন আগেই সিলেট সমাবেশস্থলে বিএনপি নেতা-কর্মীদের ঢল

আপডেট : ১৭ নভেম্বর ২০২২, ২২:৩৮

সিলেট বিভাগের চার জেলায় ধর্মঘটের মধ্যেই সিলেট আলিয়া মাদরাসা মাঠে সমাবেশের দুদিন আগেই বিভিন্ন এলাকার বিএনপির নেতা-কর্মীরা আসতে শুরু করেছেন। সমাবেশস্থল ঘিরে নেতা-কর্মীদের ঢল নেমেছে। বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) রাত ও শুক্রবার দিনসহ রাতের মধ্যে পুরো সিলেট বিভাগের লক্ষাধিক বিএনপি নেতা-কর্মী আলিয়া মাঠে এসে জড়ো হবেন বলে দলের নেতাদের প্রত্যাশা।

১৯ নভেম্বর (শনিবার) সিলেটের আলিয়া মাদরাসা মাঠে আসন্ন সমাবেশকে ঘিরে গত দুই সপ্তাহ ধরে পুরো বিভাগের বিএনপির নেতা-কর্মীদের মাঝে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। আলিয়া মাঠ প্রস্তুত ও মঞ্চ তৈরির কাজ শুক্রবারের মধ্যে সম্পন্ন করা হবে বলে জানিয়েছে দলটির নেতারা।

এদিকে বুধবার (১৬ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত পরিবহন ধর্মঘট ডাকবেন না বলে জানিয়েছিলেন পরিবহন নেতারা। কিন্তু বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) সকাল হতে না হতেই সুনামগঞ্জ ও মৌলভীবাজারে ধর্মঘটের ডাক আসে। দুপুর গড়াতে না গড়াতে সিলেট বিভাগের চার জেলায়ই বিভিন্ন সময় বেধে দিয়ে ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে বিএনপির সমাবেশস্থলে গিয়ে দেখা যায়, শামিয়ানা টানিয়ে জেলা-উপজেলা ও থানাভিত্তিক বড় বড় ক্যাম্প তৈরি করা হয়েছে। বিভাগের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা নেতাদের ব্যবস্থাপনায় তৈরি করা হয়েছে এসব ক্যাম্প। সংশ্লিষ্ট এলাকার বিএনপির নেতা-কর্মীরা শনিবারের আগে এসে পড়লে নিজ এলাকার নেতার ক্যাম্পে রাত্রি যাপন করবেন। তাদের খাবারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এ লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই বিভিন্ন ক্যাম্পে রান্নার আয়োজন করা চলে। 

ছবি: ইত্তেফাক

মঞ্চের ডান দিকে বড় একটি ক্যাম্প করেছেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সমবায়বিষয়ক সম্পাদক ও হবিগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র জি কে গউছ। তার জেলার নেতা-কর্মীদের জন্য এই ক্যাম্পে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেখানে রান্নার কাজ চলছে। হবিগঞ্জের সকল নেতা-কর্মীকে দুদিন খাওয়ানো হবে। বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার রাত পর্যন্ত প্রতি বেলা ৫ হাজার মানুষের খাবারের ব্যবস্থা করেছেন জি কে গউছ।

দেখা যায়, মৌলভীবাজার, সুনামগঞ্জ, সিলেট জেলার কানাইঘাট, জকিগঞ্জ, বালাগঞ্জসহ বিভিন্ন স্থানের নামে ক্যাম্প রয়েছে। এসব ক্যাম্পে সংশ্লিষ্ট এলাকাসমূহের আগাম আসা বিএনপি নেতা-কর্মীরা রাত যাপন করবেন। 

এদিকে কেন্দ্রীয় নেতা ড. আবদুল মঈন খান, ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ডা. শাখাওয়াত হোসেন জীবন, তাহসীনা রুশদীর লুনা এসেছেন। তারা বিএনপি নেতা-কর্মীদের উৎসাহ দিতে বিকালে মাঠে আসেন। দফায় দফায় সভা চলছে। সবাই সবার খোঁজ খবর নিচ্ছেন।

ইত্তেফাক/পিও