সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অনিয়মের অভিযোগে জাতীয় বধির সংস্থার বিরুদ্ধে মানববন্ধন

আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০২২, ২১:১৩

বাংলাদেশ জাতীয় বধির সংস্থার কার্যকরী পরিষদের নানা ধরণের অনিয়মের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছেন বাংলাদেশ জাতীয় বধির সংস্থার সাধারণ পরিষদের সদস্যরা। শনিবার (১৯ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে রাজধানীর প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বাংলাদেশ জাতীয় বধির সংস্থার সাধারণ পরিষদ সদস্যরা বলেন, বাংলাদেশ জাতীয় বধির সংস্থা প্রতিষ্ঠিত হয় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাত দিয়ে। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই তার নীতি ও আর্দশে পরিচালিত হয়ে আসছিল প্রাণের সংগঠন জাতীয় বধির সংস্থা। কিন্তু বাধ সাধে কিছু অসাধু ব‍্যক্তি।

দুঃখজনক হলেও সত্য আজ আমরা লজ্জিত। কারণ আমাদের ভেতর এমন কিছু মানুষকে নিয়ে আমাদের এখানে এসে দাঁড়াতে হবে ভাবতে পারিনি। বঙ্গবন্ধু এদেশের অবহেলিত, নিপীড়িত বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের উন্নয়নের জন্য জাতীয়ভাবে একটি সংস্থা তৈরি করে দেন। যার নাম বাংলাদেশ জাতীয় বধির সংস্থা। বঙ্গবন্ধুর ইচ্ছে ছিলো এদেশের সকল বধিররা (বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধী) যেন ন‍্যায় বিচার, সুষ্ঠু বিনোদন, সায়েন ল‍্যাঙ্গুয়েজে নিজের মনের ভাব প্রকাশ শিক্ষা, ক্রিয়া, ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক প্রতিভা বিকাশের সহায়ক এমন একটি সংস্থা গঠন করা। কিন্তু কালের বির্বতনে কিছু অসাধু লোকের ভয়াল থাবায় আজ সেই ঐতিহ্য হারাতে বসেছে এই সংস্থাটি। আমরা এর তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। আর এই প্রতিবাদের প্রতিক স্বরুপ আমাদের আজকের এই মানববন্ধন।

আজকের মানববন্ধনের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য এবং আট দফা দাবি জানাচ্ছি। সেগুলো হলো, এক. বধির না হয়েও বাংলাদেশ জাতীয় বধির সংস্থার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে বহাল থাকতে পারেন না। দুই. গত তিন বছরের হিসাব সঠিকভাবে না দিয়ে হঠাৎ করে এজিএম করে সকল অপকর্মের অনুমোদন নেওয়ার পায়তারা বন্ধ করতে হবে এবং সাধারণ পরিষদের নিকট সংস্থার সব হিসাব বিবরণী প্রমাণসহ দিতে হবে। তিন. অবহেলিত ও দুঃস্থ বধিরদের কর্মসংস্থানের ব‍্যবস্থা করতে হবে। চার. ঢাকার বাইরে থেকে আগত বধিরদের জন্য অতিথিশালা নির্মাণ করতে হবে। পাঁচ. ভেঙ্গে পড়া বধির শিক্ষা ব‍্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে হবে। ছয়. মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে বধিরদের ডিজিটাল শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে যেন দেশের ও দশের উন্নয়নে সহায়তা করতে পারে বধিররা। সাত. বতর্মান সাধারণ সম্পাদকে অপসারণ করে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনের মাধ্যমে সুস্থ নির্বাচনের পথ প্রশস্ত করা। আট. বঙ্গবন্ধুর আর্দশে বাংলাদেশ জাতীয় বধির সংস্থার পূনর্গঠনের দাবি জানাই।

ইত্তেফাক/পিও