সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

আধিপত্য বিস্তারে নরসিংদীতে টেঁটাবিদ্ধে নিহত ১, আহত ১০

আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০২২, ২২:০৯

নরসিংদীর রায়পুরায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আজগর আলী (৫৫) নামে একজন টেঁটাবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন। নিহত আজগর শ্রীনগর ইউনিয়নের গজারিয়াকান্দি গ্রামের মৃত আশ্রব আলীর ছেলে। তিনি হাজী আব্দুল খালেকের সমর্থক। 

শনিবার সকাল ৭টার দিকে উপজেলার শ্রীনগর ইউনিয়নের গজারিয়াকান্দি গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। রায়পুরা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ খান নূরউদ্দিন মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এ সময় গুরুতর আহত হয় আরও অন্তত ১০ জন। আহত হলেন, মঞ্জুর আলীর ছেলে জামির আলী (৬০), তাহার আলীর ছেলে শাহীন মিয়া (২৬), সামসুল হকের ছেলে বাচ্চু মিয়া (৪৫), আশ্রব আলীর ছেলে চান মিয়া (৬০), জিলানীর ছেলে লিয়াকত আলী (৩০)।

ছবি: প্রতিনিধি

জানা যায়, গত ইউপি নির্বাচনে শ্রীনগর ইউনিয়নের ০৩ নং ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন শাহ আলম মেম্বার ও হাজী আব্দুল খালেক। নির্বাচনে হাজী আব্দুল খালেক বিজয়ী হয়। এরই চাপা ক্ষোভে পরাজিত প্রার্থীকে ভোট না দেওয়ায় কিছুদিন পর গত ১৩ জুলাই তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে লিপ্ত হয় উভয়পক্ষের লোকজন। এতে শাহ আলম মেম্বারের সমর্থক মফিজ উদ্দিন নামে একজন টেঁটাবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়। এরই জেরে বিজয়ী আব্দুল খালেকের লোকজনের অর্ধশতাধিক কাচা-পাকা বাড়ি-ঘর ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, লুটপাটের ঘটনা ঘটায়। উক্ত ঘটনার পর থেকে প্রায় ৪ মাস ধরে এলাকা ছাড়া খালেক সমর্থকরা। এরই প্রেক্ষিতে শনিবার সকালে নিজ এলাকায় প্রবেশ করতে চাইলে শাহ আলম মেম্বারের লোকজন বাধা দেয়। এ নিয়ে দুপক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় খালেক সমর্থক আজগর আলীরক একাধিক টেটা দিয়ে আঘাত করলে টেটাবিদ্ধ হয়ে সে মারা যায়।

রায়পুরা থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই মো. নাসির বলেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শাহ আলম মেম্বার ও খালেক মেম্বারের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষে টেঁটাবিদ্ধ হয়ে আজগর আলী নামে একজন নিহত হয়। তার শরীরে ছয়টি টেটা বিদ্ধ অবস্থায় সুরতহাল করেছি। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ নরসিংদী সদরে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিবেশ শান্ত রয়েছে। 

ইত্তেফাক/পিও