বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অভাবের তাড়নায় কন্যা সন্তান বিক্রি, উদ্ধার করলো পুলিশ

আপডেট : ২৬ নভেম্বর ২০২২, ২২:০৩

অভাবের তাড়নায় রাজশাহীতে দুই দিন বয়সী কন্যা সন্তানকে বিক্রি করে দিয়েছেন বাবা। পরে অভিযোগ পেয়ে রোববার (২০ নভেম্বর) ওই শিশুটির বাবা ও ক্রেতাকে আটক ও শিশুটিকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নবজাতক কন্যা শিশুর বাবার নাম রহিদুল (৪০)। তিনি রাজশাহী নগরীর সিলিন্দা এলাকায় বাসিন্দা। পেশায় একজন দিনমজুর। গত ১২ নভেম্বর তিনি তার মেয়েকে ২৪ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দেন। শুক্রবার বিষয়টি জানতে পারে পুলিশ। পরে তাকে থানায় নেওয়া হয়। এছাড়া শিশুটির ক্রেতাকেও থানায় নেওয়া হয়েছে। তার নাম শাহানুর রহমান।

পুলিশ জানায়, রহিদুলের আরও এক ছেলে এবং এক মেয়ে আছে। তাদের বয়স ১০-১২ বছর। গত ১০ নভেম্বর রহিদুলের স্ত্রী জান্নাতুল খাতুন নগরীর লক্ষ্মীপুর এলাকার কেয়ার নার্সিং হোম নামের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে আরও একটি কন্যা সন্তান প্রসব করেন। এই শিশুটিকেই নার্সিং হোম থেকেই শাহানুরের কাছে বিক্রি করে দেন রহিদুল। এরপর থেকেই জান্নাতুলের স্ত্রী বাড়িতে গিয়ে কান্নাকাটি করছিলেন। তা দেখে স্থানীয় এক ব্যক্তি বিষয়টি থানায় জানান। এরপরই প্রথমে রহিদুল ও পরে শাহানুরকে থানায় নিয়ে আসা হয়।

থানায় অভিযুক্ত নবজাতকের বাবা রহিদুল সাংবাদিকদের জানান, অভাবের তাড়নায় তিনি শিশু বিক্রি করে দেন। এতে তিনি ২৪ হাজার টাকা পান। 

নবজাতকটির ক্রেতা শাহানুর জানান, তার বোনের কোনো সন্তান নেই। তাই বোনের জন্য তিনি শিশুটি কেনেন। কিন্তু দত্তক নেওয়ার মতো করে কোনো কাগজপত্র করে না দেওয়ায় তিনি শিশুটি নিজের কাছে রাখেননি। তার অন্য এক আত্মীয়কে শিশুটি দিয়েছেন। ওই আত্মীয়ের বাড়ি রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার কাঁকনহাটে। পরে দুপুরে শিশুটি উদ্ধার করে রাজপাড়া থানা পুলিশের একটি দল। 

কেয়ার নার্সিং হোমের পরিচালক গোলাম আশরাফ সরকার জানান, নার্সিং হোমেই শিশুটির বাবা নবজাতকটি বিক্রি করেছেন তা আগে জানতেন না। তবে বিষয়টি তিনি পরে শুনেছেন।

নগরীর রাজপাড়া থানার ওসি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করতে গেছে। বাচ্চা উদ্ধার করে নিয়ে আসার পর এ বিষয়ে বিস্তারিত বলা যাবে।

দুই কোটি টাকার হেরোইনসহ দুইজন আটক

এদিকে রাজশাহী মহানগরীর শাহ মখদুম থানা এলাকা থেকে ২ কেজি হিরোইনসহ ২ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। জব্দকৃত হেরোইনের আনুমানিক মূল্য প্রায় দুই কোটি টাকা। রোববার দুপুরে এই অভিযান চালানো হয়। পরে র‌্যাব আটক ব্যক্তিদের কার্যালয়ে নিয়ে যায়। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন র‌্যাবের দায়িত্বরত কর্মকর্তারা।

ইত্তেফাক/পিও

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন