সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

উ. কোরিয়ার বিরুদ্ধে জাতিসংঘের জোরালো পদক্ষেপ চায় যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট : ২২ নভেম্বর ২০২২, ১৬:১৭

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে জাতিসংঘের কঠোর পদক্ষেপ চায় যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার (২১ নভেম্বর) জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে আহ্বান জানিয়েছে ওয়াশিংটন। সংবাদ মাধ্যম আনাদোলু এজেন্সির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার জাতিসংঘে পিয়ংইয়ংয়ের সর্বশেষ আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ওয়াশিংটন। মার্কিন সতর্কতা সত্ত্বেও গত সপ্তাহে উত্তর কোরিয়া আরেকটি আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করেছে। 

পিয়ংইয়ং ওনসান এলাকা থেকে ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করে। এটি ছিল তাদের সবচেয়ে বড় ও সবচেয়ে শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্রের প্রথম সফল পরীক্ষা, যা উত্তর আমেরিকায় পৌঁছাতে সক্ষম। পিয়ংইয়ং ওনসান এলাকা থেকে ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করে  

কিম জং উনের সরকার এই অঞ্চলে সামরিক উপস্থিতি বাড়ানোর জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের প্রচেষ্টার প্রতিক্রিয়া হিসেবে এই পদক্ষেপ নিয়েছেন। জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন দূত লিন্ডা থমাস গ্রিনফিল্ড জানান, উত্তর কোরিয়া আটটি আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রসহ এই বছর ৬৩টি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করেছে।

লিন্ডা থমাস-গ্রিনফিল্ড জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে জানান, নিরাপত্তা পরিষদের কোনো প্রতিক্রিয়া বা প্রতিশোধের ভয় ছাড়াই ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে উত্তর কোরিয়া অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরি করছে। এছাড়াও তিনি উত্তর কোরিয়াকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের সক্ষমতা অর্জনে সহায়তা করার জন্য চীন ও রাশিয়ারও সমালোচনা করেছেন।

জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন দূত লিন্ডা থমাস গ্রিনফিল্ড

তিনি বলেন, পিয়ংইয়ংয়ের সর্বশেষ বেপরোয়া ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা জাপানি নাগরিকদের জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে। পিয়ংইয়ংয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষেত্রে চীন ও রাশিয়া যেসব প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছে তার সমালোচনা করে তিনি জানান, দুই দেশের এ ধরনের কর্মকাণ্ড উত্তর-পূর্ব এশীয় অঞ্চল এবং গোটা বিশ্বকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে।

ইত্তেফাক/ডিএস