রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

লেভেল ক্রসিংগুলো যেন মৃত্যুফাঁদ

আপডেট : ২২ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৩৩

ঢাকা-সিলেট-চট্টগ্রাম রেলওয়ে সড়কের গাজীপুরের কালীগঞ্জ এলাকায় অরক্ষিত লেভেল ক্রসিংগুলো ক্রমেই মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে। লেভেল ক্রসিংগুলোতে ঘটছে একের পর এক দুর্ঘটনা। আর এসব দুর্ঘটনায় বাড়ছে হতাহতের সংখ্যা। গত এক বছরে অরক্ষিত ওই লেভেল ক্রসিংয়ে ট্রেনের সঙ্গে বিভিন্ন প্রকার যানবাহনের দুর্ঘটনায় অসংখ্য মানুষের প্রাণহানি ঘটনা ঘটেছে। সেই সঙ্গে বেড়েছে পঙ্গুত্বের সংখ্যাও। 

ছবি: প্রতিনিধি

মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকা-সিলেট-চট্টগ্রাম রেলওয়ে সড়কের আড়িখোলা স্টেশনের অদূরে খঞ্জনা (বড়নগর রোড) লেভেল ক্রসিংয়ে ট্রেনের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই অজ্ঞাত এক যুবক (৩২) নিহত হন। একই ঘটনায় গুরুতর আহত অজ্ঞাত আরও এক যুবককে (৩৫) কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। তার বুকের পাঁজর, হাত-পা ভেঙে ও মাথায় বিভিন্ন জায়গায় ফেটে গেছে। ভেঙে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে মোটরসাইকেল। চট্টগ্রাম থেকে থেকে ঢাকাগামী মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেনের সঙ্গে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ছবি: প্রতিনিধি

জানা গেছে, প্রতিদিন এই রেললাইন দিয়ে ঢাকা থেকে সিলেট, চট্টগ্রাম ও ভৈরব হয়ে ময়মনসিংহে প্রায় ৫০টি ট্রেন আসা-যাওয়া করছে। কিন্তু কালীগঞ্জ উপজেলা সীমানায় ৮টি লেভেল ক্রসিং রয়েছে। এগুলো হলো নলছাটা, বান্দাখোলা (কামারবাড়ি), তুমলিয়া (সাদ্দাম বাজার), খঞ্জনা (বড়নগর রোড), বালীগাঁও (চৌধুরী বাড়ি), বালীগাঁও (মোড়ল বাড়ি), বাঘারপাড়া, দেওপাড়া। মধ্যে শিমুলিয়া ও দড়িপাড়া এলাকার ২টি লেভেল ক্রসিংয়ে রেলওয়ে অনুমোদিত গেইটম্যান ও গেইটবার রয়েছে। বাকি ৬টি লেভেল ক্রসিং খুবই বিপজ্জনক। ওই লেভেল ক্রসিংগুলোতে নেই কোনো গেইটম্যান বা গেইটবার। ফলে স্থানীয়রা প্রতিদিন মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে এসব লেভেল ক্রসিং পারাপার হচ্ছেন। এতে প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোট-বড় অসংখ্য দুর্ঘটনা।

ছবি: প্রতিনিধি
 
স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলওয়ে সড়কের গাজীপুরের কালীগঞ্জে ৮টি অরক্ষিত লেভেল ক্রসিং। লেভেল ক্রসিংগুলোর ৬টিতে গেইটম্যান ও গেইটবার না থাকায় খুবই বিপজ্জনক হয়ে পড়েছে। কয়েকদিন পর পরই রেলওয়ে সড়কের ওই অরক্ষিত লেভেল ক্রসিংগুলোতে ঘটছে দুর্ঘটনা। লেভেল ক্রসিংয়ে দুর্ঘটনা, মৃত্যু ও আহত হওয়ার পরও অরক্ষিত লেভেল ক্রসিংটিতে গেইটম্যান না দেওয়ায় ক্ষুব্ধ এলাকার মানুষ। তাই অনতিবিলম্বে রেল ক্রসিংগুলোতে গেইটম্যান ও গেইটবার ব্যবস্থার দাবি করেন তারা। 

ছবি: প্রতিনিধি

নরসিংদী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। খঞ্জনা (বড়নগর রোড) এটি একটি বিপজ্জনক লেভেল ক্রসিং। আমরা প্রায়ই এ লেভেল ক্রসিংয়ে দুর্ঘটনার খবর পাই। এটা ছাড়াও কালীগঞ্জ এলাকার বেশ কয়েকটি লেভেল ক্রসিংয়ে গেইটম্যান না থাকার বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। তবে গেইটম্যান না থাকার কারণে সতর্ককরণ নোটিশ দেওয়া আছে। যানবাহন চালকরা দেখে শুনে সর্তকতার সঙ্গে গাড়ি না চালানোর কারণে দুর্ঘটনা ঘটছে বলেও তিনি মনে করেন।

ইত্তেফাক/পিও