শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ১৩ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ঢাকা ইউনিভার্সিটি ফ্রেন্ডস সোসাইটির নতুন কমিটির অভিষেক

আপডেট : ২৬ নভেম্বর ২০২২, ২০:৫৮

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালের ১৯৯৪-৯৫ সেশনের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে গঠিত ‘ঢাকা ইউনিভার্সিটি ফ্রেন্ডস সোসাইটি (ডাফস)-এর নতুন কমিটি গঠিত হয়েছে। বৃহষ্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানের ক্যাপিটাল রিক্রিয়েশন ক্লাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ডাফসের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন বিজয় বসাক এবং সাধারণ সম্পাদক রীতা নাহার।
 
নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে সস্ত্রীক এসেছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান। ছিলেন শুভানুধ্যায়ী আর্টিসান আউটফিটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী আহম্মেদ রাসেল। তারুণ্যের উচ্ছাসে ভেসে যাওয়া মন্ত্রী, এমন আয়োজনের উচ্ছসিত প্রশংসা করলেন। জানালেন তারা যখন ছাত্র ছিলেন তখন এমন আয়োজন বলতে গেলে হতোই না। 

তিনি বলেন, কর্মজীবনে কেউ অনেক দূর গেছে, কেউ অতোটা পারেনি, কিন্তু বন্ধুত্বের বিচারে কেউ ছোট আর বড় নয়, সবাই বন্ধু।

ডাফসের নবনির্বাচিত সভাপতি অতিরিক্ত উপ পুলিশ মহাপরিদর্শক, রাজশাহী মেট্রোপলিটনের অতিরিক্ত কমিশনার বিজয় বসাক বলেন, একটি পরিবারের মতো সব সদস্যদের নিয়ে চলবে সংগঠনটি। যেসব বন্ধু চিরতরে হারিয়ে গেছে তাদের পরিবারের খোঁজ খবর রাখার কথাও বলেন তিনি। 

ডাফসের অন্যতম উদ্যোক্তা যমুনা টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহিম আহমেদ বলেন, সব বন্ধুর মধ্যে যে সম্পর্ক তাকে আরও বিকাশ ঘটাতে হবে। সব বন্ধুদের নিয়ে পথ চলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি। 

সদ্যবিদায়ী আহ্বায়ক রিজভী আলম আশা প্রকাশ করেন সাংগঠনিক কাঠামোর ফলে ডাফসের কার্যক্রমে আরও গতি আসবে।

বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়ার দেড় দশক পর ২০১৬ সালে এই ব্যাচের বন্ধুরা গড়ে তোলে নিজেদের সংগঠন ‘ঢাকা ইউনিভার্সিটি ফ্রেন্ডস সোসাইটি-ডাফস। 

স্পেন প্রবাসী বন্ধু রিজভী আলমকে আহ্বায়ক আর এমএ রব খানকে সদস্য সচিব করে গঠিত হয় আহ্বায়ক কমিটি। এরপর নিয়মিতই চলতে থাকে বন্ধুদের আড্ডা আর নানা আয়োজন, বন্যাসহ নানা দুর্যোগের মানুষের পাশে দাঁড়ানো। করোনার মহাবিস্তার সাড়া দুনিয়াকে থমকে দেয়। স্বাভাবিকভাবেই ডাফসের কার্যক্রমও গতি হারায় কিছুটা। অবশেষে একে পুরো সাংগঠনিক রূপ দিতে উদ্যোগী হন বন্ধুদের কয়েকজন। এরই ধারাবাহিকতায় গঠিত হয় নির্বাচন কমিশন। নির্বাচনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে গঠিত হয় কার্যনির্বাহী কমিটি।

নতুন কমিটিতে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন এ,এন, এম মুনজুর মোর্শেদ (রিপন), ড. মো. রফিকুল ইসলাম, খান মো. জাহাঙ্গীর বাবুল। 

এছাড়া যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফরিদ ছিফাতউল্লাহ ও মো. মোজাম্মেল হক সেলিম। সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আমিরুজ্জামান মিয়া (জুয়েল), মো. শাহনেওয়াজ মেহবুব (রুমি), মো. আ. ছাত্তার গাজী। অর্থ সম্পাদক মো. আব্দুর রহমান, সহ অর্থ সম্পাদক মোহাম্মদ মামুন কবির ও মোহাম্মদ ওমর ফারুক। দপ্তর সম্পাদক ফয়জুন্নেসা শিল্পী, শিক্ষা সম্পাদক আলী মোহাম্মদ কাওসার, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক মো. সুলতান উদ্দীন, ত্রাণ ও কল্যাণ সম্পাদক মো. শাহিনুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এস, এম, এ মোসাব্বির, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো. আশিকউজ্জামান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সম্পাদক সুদীপ্তা মাহমুদ শম্পা, নারীবিষয়ক সম্পাদক রত্না হালদার, কার্যকরী সদস্য ফাহিম আহমেদ, বোরহান উদ্দীন, মোহাম্মদ শহীদুজ্জামান রাজ, মুহাম্মদ গালীব খান, আব্দুর রহমান (নিশাত), মুহম্মদ হোসাইন কাজল, মুহাম্মদ শফিকুল আলম, স্নিগ্ধা শারমীনা জাফরীন, তুষার কান্তি ঘোষ ও শারমিন আলীম।

ইত্তেফাক/পিও