রোববার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

শিশু আয়াত হত্যাকাণ্ড: আসামি আবীর আরও ৭ দিনের রিমান্ডে

আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৬:২৭

চট্টগ্রাম মহানগরীর ইপিজেডে ৫ বছরের শিশু আলীনা ইসলাম আয়াতকে অপহরণের পর হত্যায় অভিযুক্ত আবীর আলীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরও ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার (২৮ নভেম্বর) সকালে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবদুল হালিমের আদালত এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

বাদীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট সেলিম উল্লাহ চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা অভিযুক্ত আবীর আলীর ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আবীর আলী। ছবি: সংগৃহীত

আসামি আবীর আলীকে আদালত থেকে প্রিজন ভ্যানের কাছে নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন তাকে মারধর করতে উদ্যত হলে পুলিশ নিরাপত্তা বেষ্টনী তৈরি করে দ্রুত তাকে আদালত এলাকা থেকে সরিয়ে নিয়ে যায়।

আবীর আলী (১৯) নগরের ইপিজেড থানার দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ডের নয়ারহাট এলাকার ভাড়াটিয়া বাসিন্দা আজহারুল ইসলামের পুত্র। তাদের বাড়ি রংপুর জেলায়। শিশু আয়াতকে খুনের মামলায় তার সম্পৃক্ততার তথ্যপ্রমাণ পাওয়ার পর গত ২৪ নভেম্বর রাতে তাকে গ্রেফতার করে পিবিআই।  

গত ২৬ নভেম্বর বিকালে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাদ্দাম হোসেনের আদালতে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। আদালত শুনানি শেষে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।  

এর আগে গত ২৫ নভেম্বর আবীরকে নিয়ে পুলিশ নগরীর আকমল আলী সড়কের স্লুইস গেট সংলগ্ন নালায় এবং পরবর্তীতে আউটার রিং রোড সংলগ্ন বে-টার্মিনাল এলাকার সমুদ্র পাড়ে যায়। সাগরের পানিতে ভেসে যাওয়ায় শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা যায়নি। তবে আকমল আলী সড়কে তার মায়ের বাসার সামনে একটি ঝোপ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত বঁটি উদ্ধার করে। এছাড়া আয়াতের বাসার পাশে কবরস্থান থেকে আয়াতের পায়ের স্যান্ডেলও উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় আয়াতের বাবা বাদী হয়ে নগরীর ইপিজেড থানায় মামলা দায়ের করেন। গত রবিবার শিশু আলীনা ইসলাম আয়াতকে অপহরণের পর হত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত রিমান্ডে থাকা আবীর আলীকে সঙ্গে নিয়ে আবারো মরদেহের খণ্ডিত অংশগুলোর সন্ধানে তল্লাশি চালায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) চট্টগ্রাম মেট্রো।

ইত্তেফাক/এএএম