বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

চাঞ্চল্যকর স্বপন হত্যা: পিন্টুর মৃত্যুদণ্ড, রত্নার যাবজ্জীবন

আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০২২, ২০:৩৩

নারায়ণগঞ্জে সেই চাঞ্চল্যকর স্বপন হত্যা মামলায় আসামি পিন্টু দেবনাথের মৃত্যুদণ্ড ও রত্না রানী চক্রবর্তীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই মামলা থেকে আরও একজন আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টায় নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ-১ আদালতের বিচারক উম্মে সরাবন তহুরা এই মামলার রায় দেন। 

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি পিন্টু দেবনাথ, যাবজ্জীবন আসামি রত্মা রানী চক্রবর্তী। তারা দুই জনকে ৫০ হাজার করে জরিমানা করা হয়েছে। অপরদিকে খালাসপ্রাপ্ত আসামি হলো আব্দুল্লাহ আল মামুন মোল্লা। নিহত ব্যক্তির নাম স্বপন কুমার সাহা। কিন্তু মুসলিম এক নারীকে বিয়ে করে নিজেও মুসলমান হন। পরবর্তীতে তার নাম হয় সাইদুল ইসলাম স্বপন। 

জানা যায়, ২০১৬ সালের ২০ অক্টোবর বিকাল ৪টা থেকে ২০১৮ সালের ৯ জুলাই দুপুর ১টার মধ্যে যে কোনো সময় হত্যাকাণ্ডটি হয়। ২০১৮ সালে ১৬ জুলাই থানা মামলা করার পর পিন্টু দেবনাথ ও তার বান্ধবী রত্না রানী চক্রবর্তী এবং এলাকার বড় ভাই পরিচিত আবদুল্লাহ আল মামুন মোল্লাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

২০১৮ সালের ২০ নভেম্বর এই মামলায় ৩ জনকেই অভিযুক্ত করে চাজশীর্ট গঠন করে। পরে ২০ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৬ জনের সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে আদালত এ রায় ঘোষণা করেন। 

অতিরিক্ত পিপি মাকসুদা আহম্মেদ রায়ের তথ্য নিশ্চিত করে জানান, নিহত স্বপনের লাশ পাওয়া যায়নি। পিন্টু দেবনাথ ও রত্মা রানী চক্রবর্তীর জবানবন্দী অনুয়ায়ী, লাশ ৭ টুকরা করে শীতলক্ষ্যা নদীতে ফেলে দেওয়া হয়েছে। তাদের তথ্য অনুয়ায়ী নিহতের বিভিন্ন আলামত উদ্ধার করা হয়েছে। রত্না রানীর কাছ থেকে মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। 

এ রায়ে সন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন নিহত স্বপনের বড় ভাই অজিত সাহা। তিনি বলেন, রায় দ্রুত কার্যকর করা হোক। এর আগে নারায়ণগঞ্জ শহরের কালীর বাজারের ভোলানাথ জুয়েলার্সের মালিক প্রবীর কুমারে হত্যা মামলায় পিন্টু দেবনাথের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ ছিলো।

ইত্তেফাক/পিও