বুধবার, ০৭ জুন ২০২৩, ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

বিএনপির গণসমাবেশের আগে রাজশাহীতে পরিবহন ধর্মঘট

আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২২, ২২:৩৯

দশ দফা দাবি পূরণ না হওয়ায় ৮ জেলায় বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘটের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। বুধবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে রাজশাহী বিভাগীয় মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ ধর্মঘটের ডাক দেয়। এদিকে আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ রয়েছে।

১০ দাবিতে এই ধর্মঘট ডেকেছে পরিবহন মালিক সমিতি। সেগুলো হলো, সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ সংশোধন করতে হবে। হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে মহাসড়ক বা আঞ্চলিক মহাসড়কে থ্রি-হুইলার (নসিমন, করিমন, ভটভটি, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ইত্যাদি) চলাচল বন্ধ করতে হবে। জ্বালানি তেল ও যন্ত্রাংশের অস্বাভাবিক মূল্য হ্রাস করতে হবে। করোনাকালে গাড়ি চলাচল না করায় সব ধরনের ট্যাক্স মওকুফ করতে হবে। সব প্রকার সরকারি পাওনা (ট্যাক্স, টোকেন, ফিটনেস) অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি বন্ধ করতে হবে।

রাজশাহী বিভাগীয় বাস মালিক সমিতির সভাপতি সাফকাত মঞ্জুর জানান, মহাসড়ক থেকে নছিমন, করিমন, ভটভটিসহ অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধসহ সমিতির ১০ দফা দাবি ছিল। এসব দাবি ৩০ নভেম্বরের মধ্যে পূরণ না হওয়ায় রাজশাহী বিভাগের ৮ জেলায় বিভাগীয় মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক বৃহস্পতিবার সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট শুরু হচ্ছে।

রাজশাহী সড়ক পরিবহন গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মতিউল হক টিটো জানান, গত শনিবার (২৬ নভেম্বর) নাটোরে অনুষ্ঠিত বিভাগীয় মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের যৌথ সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে, ৩০ নভেম্বরের মধ্যে আমাদের দাবিগুলো যদি মানা না হয়, তাহলে ধর্মঘটের আওতায় থাকবে রাজশাহী, নাটোরে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নওগাঁ, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, পাবনা ও বগুড়া জেলা।

তিনি আরও বলেন, এখানে বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র  করে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। আমাদের দাবিগুলো নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা চলছে। কিন্তু তারা কোনো সাড়া দেয়নি। এতে ১ ডিসেম্বর ভোর ৬টা থেকে রাজশাহী থেকে পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।

রাজশাহী বিভাগীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার ওরফে দুলু বলেন, মানুষজনকে কোনোভাবেই আটকে রাখা যাবে না। পরিবহন ধর্মঘটের কারণে আজ থেকে নেতা-কর্মীরা আসা শুরু করেছেন। তারা অনেক ধৈর্যের পরিচয় দিয়ে যাচ্ছেন।

আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহীর ঐতিহাসিক মাদরাসা মাঠে (হাজী মুহম্মদ মুহসীন উচ্চবিদ্যালয়ের মাঠে) বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ রয়েছে। ৮ শর্তে তাদের সেখানে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

ইত্তেফাক/পিও