শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ভারত সিরিজে সিনিয়রদের দিকে তাকিয়ে লিটন

আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ২০:০৫

নিয়মিত অধিনায়ক তামিম ইকবালের অনুপস্থিতিতে কাল থেকে শুরু হতে যাওয়া ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিবেন লিটন দাস। টাইগারদের ১৫তম ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে ভারতের বিপক্ষে অভিষেক সিরিজটিকে স্মরনীয় করে রাখতে চান লিটন। তবে  তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জিততে দলের তিন সিনিয়র খেলোয়াড় সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও মুশফিকুর রহিমের উপর নির্ভর করতে চান  লিটন।

নিয়মিত অধিনায়ক তামিম ইকবাল কুঁচকির ইনজুরিতে সিরিজ থেকে ছিটকে যাওয়ায় অধিনায়কের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে লিটনকে।

সিরিজ শুরুর আগে আজ মিরপুরে সংবাদ সম্মেলনে লিটন বলেন, ‘আমার দায়িত্বকালে ১৫ বছরের অভিজ্ঞতার সঙ্গে তিনজন সিনিয়র খেলোয়াড় আছে, এটা ভাবতে খুব ভালো লাগছে। অবশ্যই আমি চাই, মাঠে তারা আমাকে সাহায্য করুক।’

ছবি: সংগৃহীত

তিনি আরও বলেন, ‘এত বড় সিরিজে প্রথমবার দায়িত্ব পেয়েছি। বড় ভাইরা আমাকে সাহায্য করবেন বলে আমি আশাবাদী। যেকোন সময় তাদের কাছ থেকে সহায়ত পাবো।’

এবারই প্রথম অধিনায়কত্বের পাননি লিটন। ২০২১ সালে নিউজিল্যান্ডে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ইনজুরিতে পড়ার পর একটি টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেন তিনি।

লিটন বলেন, ‘ আমি কিছুই জানিনা, এটা অনেকটা ছুটির মতো (যেমনটা  নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে  টি-টোয়েন্টি ম্যাচে নেতৃত্ব দেয়ার মতো)।

তিনি আরও বলেন, ‘এত বড় সিরিজে দলকে নেতৃত্ব দেয়ার সুযোগ করে দেওয়ায় আমি বিসিবির কাছে কৃতজ্ঞ। আমি উচ্ছ্বসিত এবং আমার সামর্থ্য প্রমাণের চেষ্টা করবো। যখন আপনি শুধুমাত্র একজন খেলোয়াড় হিসেবে খেলবেন তখনও দায়িত্ব আছে। যখন অধিনায়ক হিসেবে দলকে গাইড করার দায়িত্ব পাবেন তখন আরেকটা দায়িত্ব যোগ হবে। আমাদের নিয়মিত কথা হচ্ছে এবং এর চেয়ে বেশি কিছু না। আমি ১০ দিন দলের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পাবো। আশা করি দলের কাছ থেকে ভালো সহায়তা পাবো।’

ছবি: সংগৃহীত

অধিনায়কের দায়িত্ব নেয়ার পর লিটন জানান, সিরিজ জয়ই একমাত্র লক্ষ্য। তিনি বলেন, ‘সাম্প্রতিক সময়ে তাদের বিপক্ষে দারুন প্রতিন্দ্বন্দিতামূলক ক্রিকেট খেলেছি আমরা। তারা আমাদের আন্ডারডগ মনে করে না এবং এটি একটি বড় বিষয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য হবে জয়ের জন্য খেলা। তাদের বিপক্ষে লড়াই করা সম্ভব। তিনটি বিভাগেই আমাদের ভারসাম্য রয়েছে। ভারতও শক্তিশালী দল। কিন্তু আপনাকে স্বীকার করতে হবে আমাদের কন্ডিশনে  আমরাও ভালো দল।’

লিটন আরও বলেন, ‘এটি এমন একটি ফরম্যাট যেখানে আমরা ঘরের মাঠে সত্যিই ভালো খেলি। অবশ্যই আমরা দু’জন খেলোয়াড়কে মিস করবো। তবে যারা দলে আছে তারা পারফর্ম  করার সামর্থ্য রাখে। আমাদের সঙ্গে দর্শকরাও থাকবে। আমি জানি না উইকেট কেমন হবে। এখানকার উইকেট সম্পর্কে তেমন কিছু জানে না ভারতও। তাই আমাদের জন্য এটি প্লাস পয়েন্ট।’

ছবি: সংগৃহীত

২০১৫ সালে মাশরাফি বিন মর্তুজার অধীনে ভারতের বিপক্ষে সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ। শক্তির বিচারে ভারত এগিয়ে থাকলেও লিটনের বিশ্বাস, ভারতকে হারানোর ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী থাকবে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা।

তিনি বলেন, ‘ভারতের মতো বড় দলের বিপক্ষে জয় ভবিষ্যতের টুর্নামেন্ট এবং সিরিজেও ভাল করতে আত্মবিশ্বাস দিবে আমাদের। তাই খেলোয়াড়রা সবাই  অনেক বেশি অনুপ্রাণিত।’

ইত্তেফাক/এসএস