শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে যৌন হয়রানি, গ্রেফতারকৃত শিক্ষক বরখাস্ত

আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬:৫৪

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার মেরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির মামলায় গ্রেফতার করা বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমানকে (৫২) সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সিদ্দীক মোহাম্মদ ইউসুফ রেজা স্বাক্ষরিত এক পত্রে শিক্ষক হাফিজুরকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়। শিক্ষক হাফিজুর উপজেলার মেরিয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত আশেক আলীর ছেলে। 

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শিক্ষক হাফিজুর বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের নানাভাবে যৌন হয়রানি করে আসছিলো। ওই শিক্ষকের যৌন হয়রানির অভিযোগে কয়েকবার মিটিং করে সর্তকও করা হয়। এরই মধ্যে গত ২০ নভেম্বর ওই স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে শিক্ষক হাফিজুর রহমান যৌন নিপীড়ন করেন। এরপর ওই শিক্ষার্থী বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি পরিবারকে জানালে ভুক্তভোগীর পরিবারের লোকজন ঘটনাটি বিভিন্ন দপ্তরে জানিয়েও কোনো সুরহা না পেয়ে গ্রামের লোকজনদের জানালে ওই শিক্ষকের আরও কয়েকজন শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি করার বিষয় উঠে আসে। এরপর স্থানীরা ২৭ নভেম্বর রোববার সকালে বিদ্যালয়ে গিয়ে ওই শিক্ষকের বিচারের দাবিতে বিদ্যালয় ঘেরাও করে তাকে ৫ ঘন্টা অবরুদ্ধ করে। পরে খবর পেয়ে রাণীনগর থানা পুলিশ ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গিয়ে শিক্ষকের শাস্তির আশ্বাস দিয়ে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এদিন রাতেই ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে শিক্ষক হাফিজুরকে আসামি করে থানায় যৌন নিপীড়নের মামলা দায়ের করলে থানা পুলিশ শিক্ষককে গ্রেফতার দেখিয়ে সোমবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠায়। 

শিক্ষক হাফিজুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন বলেন, ছাত্রীকে যৌন হয়রানির মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেল হাজতে থাকায় তাকে গত বৃহস্পতিবার জেলা শিক্ষা অফিসার সাময়িক বরখাস্ত করেছে। রোববার বিকেলে বরখাস্তের অফিস আদেশের পত্রটি হাতে পেয়েছি।

ইত্তেফাক/পিও