বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

জাপানের দিক মুখ করে ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা বসালো রাশিয়া

আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২১:৫৭

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জাপানের কাছ থেকে কুরিল দ্বীপের অধিকাংশ দখলে নিয়েছিল সোভিয়েত সেনারা। এ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে শীতল সম্পর্ক রয়েছে। এবার সেই দ্বীপেই প্রতিরক্ষা ক্ষেপনাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করেছে রাশিয়া। এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন। 

স্থানীয় সময় সোমবার (৫ ডিসেম্বর) এক বিবৃতিতে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, উত্তর কুরিল দ্বীপ উপকূলীয় অস্থায়ী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার অংশ এটি। আর জাপান-রাশিয়ার মধ্যে প্রসারিত কামচাটকা উপদ্বীপ গুলোর মধ্যে এটি একটি ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েনের কৌশলগত অবস্থানের অংশ বলেও জানায় তারা।

এদিকে রাশিয়ান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, প্যারামুশির দ্বীপে বেসশন ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করা হয়েছে। এই ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ৫০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।’  

জাপানের প্রধান মন্ত্রীপরিষদ সচিব হিরোকাযু মাতাসুনো এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, জাপান রাশিয়ার এই সামরিক কার্যক্রমকে সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করবে। 

কুরিল দ্বীপে রুশ সেনারা

তিনি আরও বলেন, ইউক্রেনে আগ্রাসন চালিয়ে থেমে নেই রাশিয়া। তারা এখন জাপানের পূর্ব অঞ্চলেও হামলার সামরিক প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে রাশিয়া তাদের এই আগ্রাসনকে "বিশেষ অভিযান" বলে আখ্যা দিইয়েছেন তিনি।  

ওয়াশিংটন ভিত্তিক থিংক ট্যাঙ্ক সেন্টার ফর স্ট্র্যাটেজিক অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ এর সেপ্টেম্বরে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউক্রেন রাশিয়া যুদ্ধে ঢাকা পরেছে 'কুরিল দ্বিপে মস্কোর সামরিকীকরন'। 

রাশিয়ার উপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার ক্ষেত্রে জাপান তাদের পশ্চিমা মিত্রদের পথেই হেঁটেছে। এর সূত্র ধরেই রাশিয়া জাপানের সাথে সকল শান্তি চুক্তি প্রত্যাহার করেছে এবং বিতর্কিত কুরিল দ্বীপপুঞ্জের যৌথ অর্থনৈতিক প্রকল্পগুলোও স্থগিত করেছে।

ইত্তেফাক/এএইচপি