বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

এত কড়াকড়ির মধ্যেও বিশ্বকাপের টিকিট কালোবাজারি!

আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬:৩২

চোরা না শুনে ধর্মের কাহিনি। কাতার বিশ্বকাপেও প্রমাণিত হলো এটা। আইন-কানুনের বিষয়ে স্বাগতিক কাতারের প্রশাসন খুবই কড়া। দর্শক-পর্যটকদের নিরাপত্তা, দাঙ্গা-হাঙ্গামা ঠেকানো, প্রকাশ্যে মদ্যপান না করা, খোলামেলা পোশাক না পরা, সমকামিতা—এসব বিষয়ের পাশাপাশি বিশ্বকাপের টিকিট বিক্রির ক্ষেত্রেও ভীষণ কড়া কাতার প্রশাসন। কিন্তু তাদের সেই কড়াকড়ির মধ্যেও টিকিট কালোবাজারি হচ্ছে!

বিশ্বকাপের টিকিট বিক্রি নিয়ে আইন করেছে কাতার। সেই আইন অনুযায়ী টিকিট বিক্রির অধিকার এক মাত্র ফিফার। কালোবাজারি রুখতেই এই আইন। তবু আটকানো যাচ্ছে না টিকিটের জন্য মরিয়া ফুটবলপ্রেমীদের। আর এই সুযোগটাই কাজে লাগাচ্ছে কালোবাজারির দল। তারা চালিয়ে যাচ্ছে বিশ্বকাপের টিকিট কালোবাজারির রমরমা ব্যবসা।

নির্দিষ্ট দামের ১০ গুণ বেশি মূল্যে টিকিট বিক্রি করছে তারা। কিন্তু গোপনে নয়, প্রকাশ্যেই চলছে বিশ্বকাপের টিকিটের কালোবাজারি। যেসব দেশ বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে, সেসব দেশের বেশির ভাগ দর্শকই বাকি ম্যাচের টিকিট বিক্রি করে দিচ্ছেন। চড়া দামে সেই সব টিকিট কিনে নিচ্ছেন টিকিট না পাওয়া বিভিন্ন দেশের ক্রীড়াপ্রেমিরা।

ইত্তেফাক/ইআ