বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

কক্সবাজার জনসভায় বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী

আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬:৫২

কক্সবাজার জনসভায় বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের জনসভা শুরু হয়েছে। বুধবার (৭ ডিসেম্বর) বেলা ১২টার দিকে পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত, গীতা ও ত্রিপিটক পাঠের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে জনসভা শুরু হয়।

শুরুতেই বক্তব্য দেন জনসভার সভাপতি ও কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ফরিদুর ইসলাম চৌধুরী।

এদিকে কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভা মঞ্চে উপস্থিত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (৭ ডিসেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে তিনি জনসভাস্থলে পৌঁছান।

প্রধানমন্ত্রী সভাস্থলে পৌঁছার সঙ্গে সঙ্গে স্টেডিয়ামে উপস্থিত লাখো নেতাকর্মী ‘জয় বাংলা’, ‘জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগানে তাকে স্বাগত জানান। প্রধানমন্ত্রীও হাত নেড়ে নেতাকর্মীদের শুভেচ্ছে জানান। জনসভায় বর্তমানে বক্তব্য দিচ্ছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেবেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জনসভায় অন্যান্যের মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফসহ কেন্দ্রীয় এবং জেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত রয়েছেন। 

জনসভায় যোগদানের পাশাপাশি এখান থেকে প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত কক্সবাজার জেলার ২৯টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন এবং ৪টি উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে পর্যটন শহর কক্সবাজারে এখন উৎসবের আমেজ। আওয়ামী লীগের জনসভা এবং শেখ হাসিনার আগমন ঘিরে তোরণ, ব্যানার, ফেস্টুনে বর্ণিল সাজে সেজেছে গোটা শহর। বরাবরের মতো নৌকা প্রতিকৃতির মঞ্চ নির্মাণ করা হয়েছে জনসভা মাঠে। লাল-সবুজ রঙিন নৌকায় সাজানো হয়েছে স্টেডিয়ামের পাশের জলাধার।

সকাল থেকে মিছিলে মিছিলে উৎসবের শহরে পরিণত হয়েছে কক্সবাজার। ঢাক-ঢোল, বাজনার তালে, স্লোগানে স্লোগানে মিছিল নিয়ে জনসভাস্থলে জড়ো হচ্ছেন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কক্সবাজারের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে জনসভাস্থলে আসছেন তারা।
 
লাল, নীল, সবুজ, হলুদ নানা রঙের রঙিন গেঞ্জি-ক্যাপ পরে জনসভাস্থলে আসছেন নেতাকর্মীরা। তাদের বর্ণিল পোশাকে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে জনসভা মাঠে। প্রায় সাড়ে ৫ বছর কক্সবাজারে শেখ হাসিনার আগমনকে ঘিরে উচ্ছ্বসিত নেতাকর্মীরা। তারা শেখ হাসিনাকে দেখতে এবং স্বাগত জানানোর জন্য অপেক্ষা করছেন।

এদিকে জনসভা মাঠকে ঘিরে নেওয়া হয়েছে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী  কয়েক হাজার সদস্য এবং গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা নিরাপত্তায় নিয়োজিত রয়েছেন। এর আগে, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারে কক্সবাজারের ইনানীতে আসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ইনানি সমুদ্র সৈকত থেকে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে নৌবাহিনী আয়োজিত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২৮ দেশের নৌবাহিনী ও মেরিটাইম সংস্থার অংশগ্রহণে চার দিনব্যাপী ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ (আইএফআর)-২০২২ এর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

বিশ্বের মোট ২৮টি দেশের নৌবাহিনীর প্রধান বা উচ্চপদস্থ নৌ প্রতিনিধিরা এবং বাংলাদেশ নৌবাহিনীসহ বিশ্বের সাতটি দেশের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক যুদ্ধজাহাজ, মেরিটাইম পেট্রোল এয়ারক্রাফট ও হেলিকপ্টার এই আইএফআরে অংশ নিয়েছে। আগামী ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে এই আন্তর্জাতিক ফ্লিট রিভিউ।

জনসভা শেষে বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হেলিকপ্টারে ঢাকায় ফিরবেন।

ইত্তেফাক/পিও