সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

চরাঞ্চলের হতদরিদ্রদের পাশে মানবিক শিক্ষার্থীরা

আপডেট : ২৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২২:২৬

ঢাকার দোহার ও ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার চরাঞ্চলের হতদরিদ্র মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে শীতের পোশাক ও নতুন বই খাতা নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন দোহার উপজেলার ‘লিবার্টি ইন্টারন্যাশনাল স্কুল’ নামে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। রোববার (২৫ ডিসেম্বর) বিকালে প্রতিষ্ঠানটির আয়োজনে এসব বিতরণ করা হয়।

জানা যায়, ঢাকার দোহার ও ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার পদ্মা নদীর মধ্যবর্তী চরাঞ্চল ‘দিয়ারা নারিকেল বাড়িয়া’ গ্রামটি চারপাশে নদী বেষ্টিত হওয়ায় বিচ্ছিন্ন এ চরাঞ্চলের অধিকাংশ মানুষের বসবাস দারিদ্র্য সীমার নিচে। একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসা থাকলেও সেখানকার শিক্ষার্থীরা অনেকটাই পিছিয়ে। এ বছর শীতের শুরুতে এই গ্রামের শিক্ষার্থী ও চরাঞ্চলের দরিদ্র মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে উদ্যোগ নেন দোহার উপজেলার ‘লিবার্টি ইন্টারন্যাশনাল স্কুল’ নামে একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। শীতের উষ্ণতা ও নতুন বই-খাতার রঙিন আনন্দ ছড়িয়ে দিতে রোববার বিকালে পদ্মার বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চলের শিশু-কিশোরদের মাঝে ছুটে যায় তারা। শিক্ষার্থীদের হাত হয়ে চরের শিশু-কিশোর থেকে বয়োবৃদ্ধ সবার হাতে পৌঁছে যায় শীতের পোশাক।  

শিক্ষার্থীরা জানায়, স্কুলের শিক্ষকরা সবসময় ভালো ছাত্রের পাশাপাশি। ভালো মানুষ হওয়ার কথা প্রাত্যহিক সমাবেশে প্রতিদিন বলে থাকেন। সবসময় মানুষকে সাহায্য করার কথা। গরীব মানুষের পাশে থাকার শিক্ষা দিয়ে থাকেন। যে কারণে তারা টিফিনের টাকা জমিয়ে, বাবা-মায়ের কাছ থেকে চেয়ে এনে এমন উদ্যোগ নিয়েছে। হতদরিদ্র মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে পেরে তারা খুবই আনন্দিত।

লিবার্টি ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবুল এহসান মো. ওবায়দুর রহমান বলেন, আমাদের স্কুলে মানবিক শিক্ষাকে একটি অংশ করে নিয়েছি। ২০২১ সাল থেকে এ কার্যক্রমের যাত্রা শুরু হয়েছে। সেই ধারাবাহিকতা ধরে রেখে এ বছর তারা ব্যাপক পরিসরে করেছি। চরাঞ্চলের স্কুল শিক্ষার্থীসহ তিন শতাধিক মানুষের মাঝে নতুন বই-খাতা ও শীতের পোশাক তুলে দিয়েছে লিবার্টির শিক্ষার্থীরা। আমরা শুধু পরীক্ষায় ফলাফলে সেরা নয়, মানবিক শিক্ষায়ও এগিয়ে থাকতে চাই।

দোহারের নারিশা ইউপি সদস্য মেহেদী হাসান ফারুক বলেন, একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এ ধরণের উদ্যোগ এই প্রথম দেখলাম। আমাদের প্রত্যেকের সন্তানদের এমন মানবিক শিক্ষা দেওয়া জরুরি। 

দিয়ারা নারিকেল বাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন বলেন, আমার ইউনিয়নটি নদী বিচ্ছিন্ন হওয়ায় অপেক্ষাকৃত কমসংখ্যক দাতারাই আসেন সাহায্য সহযোগিতা নিয়ে। লিবার্টি স্কুলের শিক্ষার্থীদের এমন চিন্তা-চেতনা আমাদের কাছে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

ইত্তেফাক/বুখারী/পিও