সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

যে স্কুলে তৃতীয় শ্রেণির বই পায়নি কেউ

আপডেট : ০৪ জানুয়ারি ২০২৩, ১৮:২৯

কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলায় তৃতীয় শ্রেণির কোনো শিক্ষার্থী বিনামূল্যের পাঠ্য বই পায়নি। বছরের প্রথম দিনে শতভাগ শিক্ষার্থীর হাতে নতুন পাঠ্য বই তুলে দেওয়ার কথা থাকলেও চিলমারী উপজেলায় এর ব্যতিক্রম ঘটেছে। 

এ বছর উপজেলায় তৃতীয় শ্রেণিতে মোট পাঠ্য বইয়ের চাহিদা দেওয়া হয় ৪ হাজার ২শত ৫০ সেট। কিন্তু এখন পর্যন্ত একসেট বইও উপজেলায় পৌঁছেনি। 

উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আবু ছালেহ সরকার জানান, চলতি বছর চিলমারী উপজেলায় সরকারি ৯৩ টি, বেসরকারি ৩টি, কিন্ডার গার্টেন ৫টি ও এনজিও স্কুল ৩টি মিলে ১‘শ ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য প্রাক প্রাথমিকে ৪ হাজার ১‘শ ৫০ সেট বই পাওয়া গেছে। প্রথম শ্রেণির জন্য চাহিদা ছিলো ৪ হাজার ৫০ সেটের মধ্যে গণিত বই পাওয়া যায়নি। দ্বিতীয় শ্রেণির জন্য ৪ হাজার ১‘শ ৯০ সেট বইয়ের মধ্যে বাংলা ও গণিত বই পাওয়া যায়নি। তৃতীয় শ্রেণির জন্য চাহিদা ছিল ৪ হাজার ‘২শ ৫০ সেট বই। এখনো এক সেট বইও পাওয়া যায়নি। ৪র্থ শ্রেণির জন্য ৩ হাজার ৯‘শ ৫গ সেট বইয়ের মধ্যে গণিত, বিজ্ঞান ও ধর্ম বই পাওয়া যায়নি। পঞ্চম শ্রেণির ৩ হাজার ‘৬শ ২০ সেট বইয়ের মধ্যে ইংরেজি বই পাওয়া যায়নি। 

সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বছরের প্রথম দিনে বই বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও এখন পর্যন্ত তৃতীয় শ্রেণির বই পৌঁছেনি চিলমারী উপজেলায়। এমনিতে গেল দু’বছর করোনার কারণে অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হয় শিক্ষার্থীরা। 

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আবু সালেহ এর সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, ৯০ ভাগ শিক্ষার্থীকে বই দেওয়া হয়েছে। বই আসলে বাকিটা দেওয়া হবে। এই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে জরুরি ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের হাতে শতভাগ বই তুলে দেওয়ার দাবি অভিভাবকদের। 

ইত্তেফাক/পিও