মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ইউনিটপ্রতি বিদ্যুতের খুচরা দাম ১ টাকা ১০ পয়সা বৃদ্ধির সুপারিশ

আপডেট : ০৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫:৩২

গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের খুচরা মূল্যবৃদ্ধির সুপারিশ করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি। বিতরণ সংস্থাগুলোর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রতি ইউনিট (কিলোওয়াট) বিদ্যুতের গড় মূল্য ৭ টাকা ১৩ পয়সা থেকে বৃদ্ধি করে ৮ টাকা ২৩ পয়সা নির্ধারণের সুপারিশ করা হয়েছে। অর্থাৎ এ সুপারিশ বাস্তবায়িত হলে ১৫ দশমিক ৪৩ শতাংশ বেশি দামে বিদ্যুৎ কিনতে হবে গ্রাহকদের। প্রতি কিলোওয়াটে ১ টাকা ১০ পয়সা বেশি খরচ হবে।

গতকাল রবিবার রাজধানীর বিয়াম মিলনায়তনে বিদ্যুতের সঞ্চালন ও বিতরণ মূল্যহার পুনর্নির্ধারণের প্রস্তাবগুলোর বিষয়ে আয়োজিত শুনানিতে এ বিইআরসির কমিটি এ সুপারিশ তুলে ধরে। শুনানিতে সঞ্চালন কোম্পানি পিজিসিবি এবং বিতরণ সংস্থা বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি), পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি), ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ডিপিডিসি), ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি  (ডেসকো), ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ওজোপাডিকো) এবং নর্দান ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানির (নেসকো) প্রস্তাব-দাবি তুলে ধরার পর বিইআরসির কারিগরি কমিটির মূল্যায়ন ও সুপারিশ তুলে ধরা হয়। এরপর ভোক্তা প্রতিনিধিরা বক্তব্য রাখেন। শুনানিতে অংশ নিয়ে পাইকারি দামে বিদ্যুৎ কিনতে চায় মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ এবং হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ। কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) জ্বালানি উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. এম শামসুল আলম বিদ্যুৎ খাতে নানা অসঙ্গতি ও অনিয়ম তুলে ধরেন এবং গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি না করার দাবি জানান।

শুনানি গ্রহণ করেন বিইআরসির চেয়ারম্যান মো. আব্দুল জলিল, সদস্য মোহাম্মদ আবু ফারুক, মো. মকবুল-ই-ইলাহী চৌধুরী, মোহাম্মদ বজলুর রহমান ও মো. কামরুজ্জামান। শুনানিতে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর কথা বললেও মানসম্মত এবং নিরবচ্ছিন্ন সেবা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিতে পারেনি বিতরণ কোম্পানিগুলো। শুনানি শেষে আগামী ৯০ কর্মদিবসের মধ্যে দাম নির্ধারণের বিষয়ে ঘোষণা দেবে বিইআরসি। তবে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয় চাইলে সরাসরি দাম নির্ধারণ করতে পারে।

বিদ্যুৎ খাতে ভর্তুকি দূর বা কমাতে গত ২১ নভেম্বর পাইকারি বিদ্যুতের দাম ১৯ দশমিক ৯২ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত দেয় বিইআরসি। এর ফলে বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলোর একক ক্রেতা বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) প্রতি ইউনিট বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থাগুলোর কাছে ৬ টাকা ২০ পয়সায় বিক্রি করছে। আগে এটি ছিল ৫ টাকা ১৭ পয়সা। ঐ  ঘোষণার পর ছয়টি বিতরণ সংস্থা পিডিবি, বিআরইবি, ডেসকো, ডিপিডিসি, নেসকো, ওজোপাডিকো খুচরা বিদ্যুতের মূল্য এবং পিজিসিবি সঞ্চালন মূল্যহার সমন্বয় করতে আবেদন করে।

 

ইত্তেফাক/ইআ