বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বিলাসিতা ছেড়ে সন্ন্যাসজীবনে হীরা ব্যবসায়ীর ৯ বছরের মেয়ে

আপডেট : ১৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৩:০২

জাগতিক সব সুখ সাচ্ছ্বন্দ্য ও বিলাসি জীবনের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে সন্ন্যাসজীবনের পথ বেছে নিয়েছেন গুজরাটের  এক হীরা ব্যবসায়ীর ৯ বছরের কন্যা। বুধবার তার পরিবারের পক্ষ থেকে  জানানো হয়েছে, সুরাতের ভেসু এলাকায় জৈন সম্প্রদায়ের সাধু আচার্য বিজয় কীর্তিয়াশসুরী এবং কয়েকশো মানুষের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হয় তাঁর সন্ন্যাস গ্রহণ পর্ব। অনুষ্ঠানের শুরু হয়েছিল গত শনিবার।

সন্ন্যাসজীবনে সদ্য পা রাখা ওই বালিকার নাম দেবাংশী। হীরা ব্যবসায়ী ধনেশ সাংভি এবং তার স্ত্রী অমির বড় মেয়ে সে। ভারতের হীরার জগতে বিখ্যাত সাংভি অ্যান্ড সন্স তাদেরই পারিবারিক সংস্থা। তিন দশক ধরে এই সংস্থা সুরাত থেকে হীরা রফতানি ও হীরা পালিশের সঙ্গে যুক্ত। সাংভি দম্পতির ছোট মেয়ের বয়স ৪ বছর।

সন্ন্যাসজীবনে সদ্য পা রাখা বালিকা দেবাংশী।

দেবাংশীর ধনী পরিবার যে সুখ স্বাচ্ছন্দ্য ও বিলাসিতা তাকে দিতে পারত, সে সবই এখন তাকে ত্যাগ করতে হবে। জানা গিয়েছে ছোট থেকেই আধ্যাত্মিকতার প্রতি আকৃষ্ট দেবাংশী। সন্ন্যাসগ্রহণের জন্য অন্যান্য সাধকদের সঙ্গে পায়ে হেঁটে ৭০০ কিমি পথ পাড়ি দিয়েছে সে। তাদের পারিবারিক বন্ধু নীরব শাহ জানিয়েছেন খাতা কলমে সন্ন্যাস জীবনে পা রাখার অনেক আগে থেকেই কৃচ্ছ্ব্রসাধনকে আপন করে নিয়েছিল দেবাংশী।

পাঁচটি ভাষায় দক্ষ এই বালিকা আরও ছোট থেকেই কঠোর ব্রহ্মচর্য পালন করছে। তার সন্ন্যাসগ্রহণের আগের দিন সুরাত শহরে এক শোভাযাত্রার আয়োজন করেন দেবাংশীর অনুরাগীরা। এমনকি, সুদূর বেলজিয়ামেও এরকমই এক শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়। প্রসঙ্গত বেলজিয়ামের সঙ্গে সুরাতের জৈন সম্প্রদায়ের হীরা ব্যবসায়ীদের অনেকেরই ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ আছে।

ইত্তেফাক/ইআ