বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

শিকে জেলেনস্কির চিঠি

আপডেট : ১৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৩:২১

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংকে আলোচনার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। ইউক্রেনে রুশ অভিযানের এক বছর পূর্তি উপলক্ষে শি জিন পিংকে লেখা চিঠিতে এই আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জেলেনস্কির স্ত্রী ওলেনা জেলেনস্কা বুধবার (১৮ জানুয়ারি) জানিয়েছেন, চিঠিটি সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামে চীনের প্রতিনিধি দলের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। 

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংকে আলোচনার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে রুশ অভিযান শুরুর পর থেকে জেলেনস্কি বারবার শি জিন পিংয়ের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছেন। তার আশা, বেইজিং রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে প্রভাবিত করতে সক্ষম হবে। 

জেলেনস্কা সাংবাদিকদের জানান, সৌজন্য পত্রে সংলাপে বসার আমন্ত্রণ দেওয়া হয়েছে। এই আমন্ত্রণে সাড়া পাওয়া যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

জেলেনস্কির স্ত্রী ওলেনা জেলেনস্কা

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন ইউক্রেনে অভিযানের নির্দেশ দেওয়ার আগে, চীন ও রাশিয়া 'সীমাহীন' অংশীদারিত্ব ঘোষণা করেছিল। ইউক্রেন যুদ্ধে বেইজিং নিরপেক্ষ অবস্থান দেখিয়ে আসছে। 

একই সঙ্গে মস্কোর সঙ্গে সম্পর্ক গভীরতর করছে চীন। বিশেষ করে জ্বালানি খাতে দুই দেশের সম্পর্ক গভীর হচ্ছে। তবে বিশ্লেষকদের কেউ কেউ বলছেন, চীন শেষ পর্যন্ত ইউক্রেনের শত্রুতা বন্ধে আলোচনার জন্য মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কাজ করতে পারে। 

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন ইউক্রেনে অভিযানের নির্দেশ দেওয়ার আগে, চীন ও রাশিয়া 'সীমাহীন' অংশীদারিত্ব ঘোষণা করেছিল।

গত সেপ্টেম্বরে, তৎকালীন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই ইউক্রেনের যুদ্ধের অর্থনৈতিক প্রভাব নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন। পরিস্থিতি যাতে নিয়ন্ত্রণের বাইরে না যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে তিনি যুদ্ধরত সব পক্ষকে আহ্বান জানান।

আগস্টে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জেলেনস্কি জানান, তিনি শি এর সঙ্গে আলোচনার আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব দিয়েছেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন, এই আলোচনা সহায়ক হবে। গত সেপ্টেম্বরে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশন চলাকালীন দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা বৈঠকে অংশ নেন।

ইত্তেফাক/ডিএস